Date : 2022-06-30

অফলাইন ও অনলাইন এই দুটি পদ্ধতিতেই হবে সংস্কৃত কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের এবারের সিমেস্টার

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক : করোনার জন্য দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। সংক্রমণ কমতেই ছন্দে ফিরেছে পঠনপাঠন। অফলাইনে মুডে ফিরেছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। কিন্তু পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পথে এগোলেও রাজ্যের বিভিন্ন কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইনে পরীক্ষার দাবিতে শুরু হয়েছে পড়ুয়াদের বিক্ষোভ। কোথাও কোথাও এই বিক্ষোভ সভ্যতা ও শালীনতার গণ্ডি ছাড়িয়েছে। এখন অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়া হলে পড়ুয়াদের ভবিষ্যৎ প্রশ্নচিহ্নের মুখে পড়বে বলে মনে করছে শিক্ষা মহল। অনলাইন পরীক্ষার দাবিতে আন্দোলনে নামেন সংস্কৃত কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারাও। অনলাইনে পরীক্ষার দাবিতে সোমবার দুপুর ৩টে থেকে রাত সাড়ে ১১টা পর্যন্ত ঘেরাও করে রাখা হয় উপাচার্যকে । পরে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের তরফে বলা হয় অনার্স পেপার অফলাইনে নেওয়া হলেও ঐচ্ছিক ও প্রজেক্ট বেসড পেপারগুলির ক্ষেত্রে অনলাইন নাকি অফলাইন, সেই সিদ্ধান্ত নেবেন বিভাগীয় প্রধানরা। অর্ধেকাংশ পড়ুয়া কর্তৃপক্ষের এই দাবি মানলেও এখনও বহু ছাত্র ছাত্রীদের দাবি অনলাইনেই নেওয়া হোক সম্পূর্ণ পরীক্ষা। স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর স্তরে চূড়ান্ত সিমেস্টারের পরীক্ষা পিছিয়ে ১৪ জুন শুরু হবে। বাকি ইভ্‌ন সিমেস্টারের পরীক্ষা শুরু হবে ২৮ জুন।

যেখানে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়ারা শুধুমাত্র অনলাইনে পরীক্ষার দাবি জানাচ্ছেন, সেখানে সংস্কৃত কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের একাংশ পড়ুয়া অফলাইনে পরীক্ষার দাবিও জানিয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের একই চৌহদ্দিতে দাঁড়িয়ে একদল পড়ুয়া যেখানে অনলাইন পরীক্ষার দাবি তুলেছেন অন্যদিকে একদল পড়ুয়া অফলাইনের হয়ে সাওয়াল তুলেছেন। প্লাকার্ড ও পোস্টারের মাধ্যমে তাদের সাফ কথা অনলাইন নয় অফলাইনের মাধ্যমেই পরীক্ষায় পাশ করতে চান তারা। তবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ পড়ুয়াদের দাবি কিছুটা মানলেও অফলাইনে সিলমোহর দিয়েছেন। ঐচ্ছিক বিষয়গুলি অনলাইনে হবে না অফলাইনে তার সিদ্ধান্ত একদিকে যেমন বিভাগীয় প্রধানদের হাতে ছেড়েছেন তেমনই অনার্সের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি ছাত্রছাত্রীদের বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে দিতে হবে তা সাফ জানিয়ে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।