Date : 2022-06-30

উন্নয়নের পথে প্রচার। সাইকেলে স‌ওয়ার জেলাশাসক।

সঞ্জু সুর সাংবাদিক : ‘লক্ষীর ভান্ডার’ থেকে ‘কন্যাশ্রী’। ‘কন্যাশ্রী’ থেকে ‘রুপশ্রী’। ‘রুপশ্রী’ থেকে ‘সবুজ সাথি’। রাজ্যে হাজারো একটা উন্নয়নমূলক প্রকল্প। সেই প্রকল্পের সঠিক হদিস উপভোক্তাদের কাছে সঠিকভাবে পৌঁছে দেওয়ার জন্য প্রয়োজন সার্বিক প্রচার। শনিবার আলিপুরদুয়ারের জেলাশাসক সেই সার্বিক প্রচার সারলেন সাইকেলে স‌ওয়ার হয়ে।

রাজ্যে তৃতীয় বার ক্ষমতায় ফেরার দিনটি মনে রেখে মে মাসের পাঁচ তারিখ নেতাজি ইনডোর স্টেডিয়ামে ‘উন্নয়নের পথে ১১ বছর’ নামে একটি প্রচার কর্মসূচির সূচনা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রতিটা জেলাতেই এই কর্মসূচির মাধ্যমে রাজ্য সরকারের উন্নয়নমূলক প্রকল্পের প্রচার করা হচ্ছে। তার‌ই অঙ্গ হিসাবে অভিনব উদ্যোগ আলিপুরদুয়ার জেলা প্রশাসনের।

শনিবার জেলাশাসক সুরেন্দ্র কুমার মিনা একঝাঁক কচিকাঁচাকে সঙ্গে নিয়ে জেলার মাদারিহাট ব্লকের রাস্তায় সাইকেলে স‌ওয়ার হলেন। পরনে ‘উন্নয়নের পথে ১১ বছর’ লেখা টি শার্ট। দিন কয়েক আগে জেলার চা বাগান গুলোতে এই কর্মসূচি পালন করা হয়েছিলো জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে। আলিপুরদুয়ারের জেলাশাসক সুরেন্দ্র কুমার মিনা জানান, “মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী যে সব প্রকল্প শুরু করেছেন, আমরা সেই প্রকল্পগুলোর সুবিধা সাধারণ জেলাবাসীর কাছে পৌঁছে দিচ্ছি। সেই সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে ‘উন্নয়নের পথে ১১ বছর’-এই কর্মসূচির মাধ্যমে প্রতিটি মানুষকে প্রতিটি প্রকল্প সন্মন্ধে জানাচ্ছি।” তিনি আরও বলেন, “জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের বেশিরভাগ মানুষজন‌ই হয়তো সব প্রকল্পের বিষয়ে সবটা জানেন। কিন্তু যদি কোথাও একজন মানুষও না জেনে থাকেন তাই আমরা চা বাগান থেকে শুরু করে বিভিন্ন আদিবাসী বস্তি এলাকা, সব জায়গায় যাচ্ছি।”

২০২৩ এর পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে ইতিমধ্যেই বল গড়াতে শুরু করেছে রাজ্য প্রশাসনের অন্দরমহলে। বিশেষ করে মুখ্যমন্ত্রীর ঝাড়গ্রাম ঘোষণার পর। ফলে সেই নির্বাচনে সরকারের উন্নয়নমূলক কাজের সার্বিক প্রচার ও প্রসার যে শাসক দলকেই সুবিধা দেবে তা বলাই যায়।