Date : 2022-10-03

মুখ্যমন্ত্রী অভিষেক। এক যুগের ফারাক কুনাল,অপরূপা-র মন্তব্যে।

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক : সোমবার এক দীর্ঘ ফেসবুক পোষ্টে কুনাল ঘোষ লিখেছিলেন ২০৩৬ সালে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হবেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। আর মঙ্গলবার অপরূপা পোদ্দার টুইটে লিখলেন ২০২৪ এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হবেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সোশ্যাল মিডিয়ায় করা তৃণমূল কংগ্রেসের দুই নেতা নেত্রীর পোষ্ট নিয়ে সরগরম রাজ্য রাজনীতি।

তৃণমূল কংগ্রেসের অন্যতম রাজ্য সম্পাদক কুনাল ঘোষের সোমবারের ফেসবুক পোষ্ট নিয়ে ইতিমধ্যেই জোর জল্পনা ছড়িয়েছে শাসক দলের অভ্যন্তরে। তৃণমূল কংগ্রেসের সরকারের তৃতীয় বর্ষপূর্তি স্মরণে ফেসবুক পোষ্টে কুনাল ঘোষ লেখেন, “তৃণমূল কংগ্রেসের এক সৈনিক হিসাবে বলতে পারি ২০৩৬ পর্যন্ত বাংলার মুখ্যমন্ত্রী থাকবেন মমতাদি। আর সেই ২০৩৬ সালে তিনি অভিভাবকের মতো উপস্থিত থাকবেন এমন অনুষ্ঠানে, যেখানে মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেবেন অভিষেক। মুখ্যমন্ত্রীত্বে জ্যোতি বসুর রেকর্ড ভেঙে ভারতে নজির গড়বেন মমতাদি।” কুনাল ঘোষের এই পোষ্ট নিয়ে সোমবার সারাদিন বিভিন্ন জল্পনা চলতে চলতেই মঙ্গলবার অপরূপা পোদ্দারের টুইট। তৃণমূল সাংসদ অবশ্য ২০৩৬ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে রাজি নন। নিজের ভেরিফাইড টুইটার হ্যান্ডলে অপরূপা পোষ্ট করেন, “আমি চাই আমাদের দিদি ২০২৪ এ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন আরএসএস মনোনীত রাষ্ট্রপতির থেকে।

আর এই বিজেপির গোবর্ধন জগদীশ ধনকরের থেকে বাংলায় ২০২৪ এ মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন আমাদের প্রিয় যুবনেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।” মঙ্গলবার সকাল দশটা বারো মিনিটে অপরূপা পোদ্দার এই টুইট করার সঙ্গে সঙ্গেই তা ভাইরাল হয়। বিরোধীরা অনেকেই বলতে শুরু করে এখন‌ই মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ারে বসতে চেয়ে ভাইপো তার কাছের লোকদের দিয়ে এইসব পোষ্ট করাচ্ছে। এসব তৃণমূলের আভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে পিসি ভাইপোর ক্ষমতা দখলের লড়াই। যদিও তৃণমূল কংগ্রেসের একাধিক শীর্ষ নেতার মত, দু’জনেই যা বলছেন তা ভুল কিছু নয়। হয়তো সময়ের হেরফের হতে পারে। তাঁদের পরিষ্কার বক্তব্য, ২০২৪ এ এরাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেস একাই ৩৮ থেকে ৪০ টি আসন পাবে। ফলে সেই সময় জাতীয় রাজনীতিতে কেন্দ্রের সরকার গড়ার ক্ষেত্রে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন।

এদিকে কুনাল ঘোষের পোষ্ট নিয়ে প্রশ্ন করলে বিজেপির এক রাজ্য নেতার সহাস্য মন্তব্য, “তারমানে কুনাল ঘোষ নিজেই মেনে নিচ্ছেন যে ২০৩৬ সাল পর্যন্ত দিল্লিতে বিজেপি‌ই থাকছে।” যদিও কুনাল ঘোষ তাঁর পোষ্টে এটাও লিখেছেন “তবে তার মধ্যে যদি দিল্লির এবং দেশের দায়িত্ব নিতে হয়, তাহলে পরিস্থিতি আরেকরকম তো হবেই।” এদিকে ২০২৪ এই অভিষেককে মুখ্যমন্ত্রী পদে চেয়ে অপরূপা পোদ্দারের টুইট বিতর্কের জন্ম দিতেই সেই টুইট তিনি ডিলিট করে দেন। পরবর্তী সময়ে এই নিয়ে অবশ্য আর কোনো মন্তব্য তিনি করেন নি।