Date : 2022-10-02

কেন্দ্রীয় ভাবে অনলাইনে ভর্তি প্রক্রিয়া নিয়ে উপাচার্যদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন শিক্ষামন্ত্রী

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক : বৃহস্পতিবার ২রা জুন কলেজের ভর্তি প্রক্রিয়া নিয়ে সমস্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। সূত্রের খবর,কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে কেন্দ্রীয় ভাবে অনলাইনে ভর্তির বিষয় নিয়ে আলোচনা করতেই এই বৈঠক ডাকা হয়েছে। কিছুদিনের মধ্যেই প্রকাশিত হবে উচ্চ মাধ্যমিকের ফল। তারপরেই শুরু হবে ভর্তির পালা। শহর কলকাতাসহ জেলায় জেলায় কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে বাড়বে ভর্তির চাপ। পরিস্থিতি যাতে নিয়ন্ত্রণে থাকে তার জন্য স্নাতকে ভর্তি নিয়ে এখন থেকেই সম্পূর্ণ ব্যবস্থা সেরে রাখতে চাই শিক্ষা দফতর। তাই ভর্তি শুরুর আগেই উপাচার্যদের নিয়ে বৈঠকে বসবেন শিক্ষামন্ত্রী। কলকাতা ও সংলগ্ন এলাকার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের এই বৈঠকে সশরীরে উপস্থিত থাকার জন্য আবেদন জানানো হয়েছে। তবে দূরবর্তী জেলাগুলির উপাচার্যরা এই বৈঠকে ভার্চুয়ালি উপস্থিত থাকবেন বলেই জানা গেছে।

২০১১ সালে তৃণমূল সরকার ক্ষমতায় আসার পর কলেজে কেন্দ্রীয় ভাবে পড়ুয়া ভর্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। সে সময়েও শিক্ষামন্ত্রী ছিলেন ব্রাত্য বসু। তবে তখন পরিকল্পনা গ্রহন করা হলেও তা বাস্তবায়িত করা যায়নি। এবার কেন্দ্রীয় ভাবে ভর্তি প্রক্রিয়া বাস্তবায়িত করার পথেই এগোচ্ছে শিক্ষা দফতর।

বিকাশভবন সূত্রের খবর,কেন্দ্রীয়ভাবে ভর্তি প্রক্রিয়া হলে প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব একটি কেন্দ্রীয় পোর্টাল থাকবে। যে পোর্টালের মাধ্যমে পড়ুয়ারা বিশ্ববিদ্যালয়গুলির আওতাধীন সব কলেজের ভর্তি সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য পাবেন। আর সেখানেইতারা ভর্তির জন্য আবেদন করবেন। তবে এক জন পড়ুয়া একসঙ্গে ক’টি কলেজে আবেদন করতে পারবেন, সে নিয়ে এখনও কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি বলেই জানা গেছে। উপাচার্যদের সঙ্গে বৈঠকে বিষয়টি আলোচিত হতে পারে। হত দুবছর ধরে করোনার জন্য স্নাতকে অনলাইনে আবেদনের জন্য পড়ুয়াদের দিতে হয়নি কোনও ফি। এবছর সেনিয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

প্রসঙ্গত রাজ্যের কলেজগুলিতে বেশ কয়েকবছর ধরেই অনলাইনে পড়ুয়া ভর্তি শুরু হলেও তা কেন্দ্রীয় ভাবে হয়নি। প্রতিটি কলেজ আলাদা আলাদা করেই ফর্ম তোলা এবং জমা দেওয়ার প্রক্রিয়া অনলাইনে করে।তবে পড়ুয়াদের কাউন্সেলিংয়ের জন্য নথিপত্র নিয়ে কলেজে যেতেই হত। তবে কেন্দ্রীয় ভাবে অনলাইনে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হলে কলেজগুলিতে আসন ফাঁকা থাকার সমস্যারও অনেকটাই সমাধান হবে বলে মত শিক্ষকমহলে একাংশের।

বেলা ২টো থেকে ভর্তি নিয়ে উপাচার্যদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন শিক্ষামন্ত্রী। ইউজিসি-র সমস্ত নির্দেশাবলী মেনেই ভর্তি নিয়ে প্রস্তুতি চলছে কি না সে বিষয়েও এই উঠতে পারে এই আলোচনায় বলে জানা গেছে।