Date : 2022-11-29

দাম্পত্য কলহের জেরে স্ত্রীকে খুন করে থানায় আত্মসমর্পণ স্বামীর

সঞ্জনা লাহিড়ী, সাংবাদিক: প্রায়শই বিভিন্ন কারণে নিত্যদিন অশান্তি লেগে থাকত বাকুলি পরিবারে। বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক রয়েছে অনুমান করে স্ত্রীকে সন্দেহ করতেন স্বামী উত্তম বাকুলি। মঙ্গলবার সকাল থেকেই অশান্তি শুরু হয় বাকুলি দম্পতির মধ্যে। সন্ধ্যায় বাড়িতে অশান্তি হওয়ার পর উত্তমের স্ত্রী বেবী বাকুলি আলু কিনতে দোকানে গেলে গীতা স্টোর্স নামে একটি দোকানের সামনে হঠাৎই স্ত্রীয়ের ডান কাঁধে ধারালো অস্ত্রের কোপ মারে উত্তম। রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে উত্তমের হাতে অস্ত্র দেখতে পায় প্রতিবেশীরা।

উত্তমের বড় ছেলে অভিষেক বাকুলি থানায় ফোন করে জানায়। অন্যদিকে অভিযুক্ত উত্তম বাকুলি ফুলবাগানে তাঁদের ফ্ল্যাটে নিজেকে বন্ধ করে রাখে। প্রতিবেশীরা ফ্ল্যাটের সামনে গিয়ে বিক্ষোভ করলে উত্তম খুনের অস্ত্র নিয়ে ফুলবাগান থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করে। পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয় অস্ত্র। পাশাপাশি তিনি নিজেও কীটনাশক খেয়েছেন বলে জানায়।

বেবী বাকুলিকে বাইপাসের একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। অভিযুক্ত উত্তম বাকুলিকে ওই একই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল। খুনের মামলা রুজু করা হয়েছে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত উত্তম বাকুলি ছেলে অভিষেকের ব্যবসার গাড়ি চালায়। সন্দেহের বশেই খুন নাকি অন্য কোনও কারণ রয়েছে তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।