Date : 2022-08-10

দুর্গাপুজোকে ইউনেস্কো ইনট্যাঞ্জিবল কালচারাল হেরৢটেজ মর্যাদা দিয়েছে। তা সত্ত্বেও কুমোরটুলির পরিকাঠামোর কোনও উন্নতি ঘটেনি বলে দাবি শিল্পী থেকে কারিগরদের

শাহিনা ইয়াসমিন, সাংবাদিকঃ কুমোরটুলির শিল্পীদের হাতে গড়া দুর্গাপ্রতিমা যা দুর্গাপুজোগুলিতে সভা পায়। সেই দুর্গাপুজোকে ইউনেস্কো ইনট্যাঞ্জিবল কালচারাল হেরিটেজ মর্যাদা দিয়েছে। তারপরেও পরিকাঠামোগত উন্নতি ঘটেনি কুমোরটুলির। আক্ষেপ ও আশাহত শিল্পীরা।
উত্তর কলকাতার ঐতিহ্যপূর্ণ মৃত্শিল্পীদের পীঠস্থান হল কুমোরটুলি। কুমোরটুলি থেকেই দূর্গা প্রতিমা দেশ-বিদেশে পাড়ি যায়। দুর্গাপুজো ইউনেস্কোর ইনট্যাঞ্জিবল কালচারাল হেরিটেজ বা আইসিএইচ মর্যাদা পাওয়ার পরেও কুমোরটুলির পরিকাঠামোগত এবং কাজের অবস্থার উন্নতির কোনও আশা দেখছেন না মৃত্শিল্পী থেকে প্রতিমাশিল্পীরা। প্রায় ৩০০বছরের পুরনো কুমোরটুলি। কুমোরটুলির অভ্যন্তরীণ কোনও উন্নতি সেভাবে হয়নি। কুমোরটুলিতে প্রায় হাজারেরও উপরে মৃত্শিল্পী ও কারিগরদের অবস্থান। যারা প্রতিমা গড়েন তারা আজও বঞ্চিত। দুর্গাপুজোকে ইউনেস্কোর ট্যাগ দেওয়ার পরেও শিল্পীরা কোনও স্বীকৃত পায়নি বলে অভিযোগ প্রতিমাশিল্পী মিন্টু পালের।

কুমোরটুলির পরিকাঠামোর উন্নতি হয়নি। তবে কাস্টমারদের উতসাহ বেড়েছে বলে দাবি কুমোরটুলি মৃত্শিল্প সংস্কৃতি সমিতির সম্পাদক বাবু পাল। পাশাপাশি তিনি জানান, সব শিল্প নিয়ে ভাবা হয়। কিন্তু কুমোরটুলির মৃত্শিল্পীদের, কারিগরদের কথা ভাবা হয় না। তাদের কথা না ভাবলে আগামীদিনে শিল্প ও শিল্পীর ভবিষ্যত খুঁজে পাওয়া যাবে না। কারণ নতুন প্রজন্ম একাজে আর আসতে চাইছে না।
মাটির টানে একাজে আসা আর্ট কলেজের ছাত্র অয়ন দত্তের। কুমোরটুলিতে নিজের অস্তিত্বের লড়াই লড়ছে অয়ন। পাল না হয়েও মাটির সঙ্গে আত্মিক টান তার। অয়ন জানায় কুমোরটুলিতে নতুন প্রজন্মদের দেখা পাওয়া যাচ্ছে না। কুমোরটুলিতে সেই সব থেকে ছোট শিল্পী।
কুমোরটুলিতে অর্ডার ও কাস্টমার কমেছে। কারণ কুমোরটুলির ব্যতিক্রমী অনেক প্রতিমা গড়ার জায়গা গড়ে উঠেছে। তবে কুমোরটুলিই একমাত্র সেই জায়গা যেখানে বিখ্যাত বিখ্যাত প্রতিমা গড়ে উঠেছে। তাই কুমোরটুলির পরিকাঠামো উন্নতি হওয়ার আশা রাখছেন শিল্পীরা।