Date : 2022-08-11

শিক্ষার পর স্বাস্থ্য, নিয়োগ দুর্নীতি! স্বজনপোষণ, পক্ষপাতিত্ব এবং ক্ষমতার অপব্যবহার হয়েছে: ডিভিশন বেঞ্চ।

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়, সাংবাদিক : গ্রূপ সি,গ্রূপ ডি, সহকারী শিক্ষক নিয়োগ, প্রাইমারি টেট নিয়োগ দুর্নীতির অভিযোগে হাই কোর্টের নির্দেশে সিবিআই তদন্ত করছে।এবং বেআইনি নিয়োগের তালিকায় যুক্ত হল রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর।স্বাস্থ্যদপ্তরের তরফে মেডিক্যাল ল্যাব টেকনোলজিস্ট নিয়োগে গুরুতর অনিয়মের অভিযোগ ওঠে। প্রাক্তন বিচারপতির নেতৃত্বে গঠিত একটি কমিটিকে ওই অভিযোগের তদন্তের নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট।

অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি জয়ন্তকুমার বিশ্বাসের নেতৃত্বে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করল কলকাতা হাই কোর্ট। এক মামলার প্রেক্ষিতে বিচারপতি হরিশ টন্ডন এবং শম্পা দত্ত পালের ডিভিশন বেঞ্চ এই কমিটি গঠন করার নির্দেশে দিয়েছে।

মামলার বয়ান অনুযায়ী ২০১৮ সালে স্বাস্থ্য দপ্তরের অধীনে মেডিক্যাল টেকনোলজিস্টের ৭২৫ শূন্যপদে নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি জারি করে ওয়েস্ট বেঙ্গল হেলথ রিক্রুটমেন্ট বোর্ড। ২০১৯ সালে নথি যাচাই এবং ইন্টারভিউ হয়। যা নিয়েই মামলা দায়ের হয় হাই কোর্টে। মামলাকারীর দাবি, তিনি এমএসসি পাস করেছেন। তা সত্ত্বেও তাঁকে মেডিক্যাল টেকনোলজিতে এক বছরের ডিপ্লোমা করেছেন এই যোগ্যতা দেখিয়ে ১২ নম্বর দেওয়া হয়। অথচ কিছু বিএসসি পাস করা প্রার্থীকে ল্যাব টেকনোলজির যোগ্যতা দেখিয়ে ১৫ নম্বর দেওয়া হয়। এবং নিয়োগ করা হয়। এই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালে আবেদন করেন মামলাকারীরা। যদিও পরবর্তী সময়ে সেই আবেদ ন খারিজ হয়ে যায়।

বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডনের নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চ প্রাথমিক বিচারে মনে করে, এই নিয়োগে ব্যাপক স্বজনপোষণ, পক্ষপাতিত্ব এবং ক্ষমতার অপব্যবহার হয়েছে।স্বাস্থ্যদপ্তরের মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট পদে নিয়োগ দুর্নীতির অভিযোগের তদন্ত করতে অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি জয়ন্তকুমার বিশ্বাসের নেতৃত্বে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি।