Date : 2022-11-29

চতুর্থ ঢেউ এর আগাম সতর্কতায় রাজ্য। ফের কোভিড প্রটোকল মানার ওপর জোর। জোর বুস্টার ডোজ দেওয়ার ক্ষেত্রেও।

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক ঃ শনিবার রাজ্যের মুখ্য সচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদীর নেতৃত্বে বিশেষ বৈঠক করে সরকার। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য সচিব নারায়ণ স্বরূপ নিগম সহ ডিরেক্টর হেলথ সিকিউরিটি এবং ভার্চুয়ালি উপস্থিত ছিলেন প্রতিটি জেলার জেলাশাসক, পুলিশ সুপার ও জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিকেরা। নবান্ন সূত্রে খবর বৈঠকে বেশ কয়েক দফা ডিরেক্টিভস দেওয়া হয়েছে। যারমধ্যে অন্যতম ফের কোভিড প্রটোকল মানার উপর জোড় দেওয়া। কারণ রাজ্য সরকার মনে করছে কোভিডের চতুর্থ ঢেউ আসতে চলেছে।

সূত্রের খবর, শনিবারের বৈঠকে মুখ্যসচিব যে নির্দেশিকা দিয়েছেন তা অনেকটা এইরকম-
১) বুস্টার ডোজ দেওয়ার ক্ষেত্রে যে ৭৫ দিন সময় সীমা ধার্য করা হয়েছে সেই সময়ের মধ্যেই বুস্টার ডোজ দেওয়ার বিষয়টি কমপ্লিট করতে হবে।
২) কোভিড প্রটোকল মানার উপর নজর দিতে হবে।
৩) পুলিশ সুপারদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বিভিন্ন বাজারে হঠাৎ দহল দিতে হবে কাছে রাখতে হবে তাপমাত্রা মাপার যন্ত্র। প্রয়োজনে তাপমাত্রা মেপে দেখতে হবে। বাজার গুলিতে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রাখা, নির্দিষ্ট সময় অন্তর স্যানিটাইজেশন করা এই বিষয়গুলির দিকে নজর দিতে হবে।

৪) শুক্রবার পাঁচজনের পর শনিবারও ৬ জন মারা গিয়েছে। মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে। এটা উদ্বেগজনক, ফলে মাস্ক পড়ার উপর জোর দেওয়া হয়েছে।
৫) কোভিড সংক্রমনের ক্ষেত্রে উত্তর ২৪ পরগনা জেলা বেশি মাথা ব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে সরকারের কাছে। ফলে উত্তর ২৪ পরগনার জেলাশাসককে আলাদা করে বলা হয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য। কোভিড সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য মাইকিং, ক্যাম্পিং করার নির্দেশও উত্তর ২৪ পরগনার জেলাশাসককে দেওয়া হয়েছে।
৬) চতুর্থ ঢেউয়ের আশংকায় হাসপাতালগুলিকে এখন থেকেই সমস্ত ব্যবস্থা রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কোভিডের জন্য নির্দিষ্ট বেড সংরক্ষণ করে রাখতে হবে।
৭) জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিকদের বলা হয়েছে জেলায় যাদের কোভিডের লক্ষণ দেখা গেছে বা কোভিড হয়েছে তাদের মনিটরিং এ বিশেষ নজর দিতে হবে।
৮) টিকা করনের গতি বাড়ানোর জন্য প্রয়োজনে আরো বেশি সংখ্যক কোভিড ভ্যাকসিনেশন সেন্টার খুলতে হবে।
৯) বাইরে থেকে আসা মানুষদের বিশেষ করে পর্যটকদের ক্ষেত্রে ভ্যাকসিনেশনে বিশেষ জোর দেওয়ার নির্দেশ।