Date : 2022-09-27

দায়িত্ব নিয়েই প্রতি বছরের টেট নেওয়ার প্রতিশ্রুতি নতুন সভাপতির

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক : প্রতিবছর হবে প্রাথমিকের টেট, হবে নিয়োগ। বুধবার দায়িত্বভার গ্রহণ করতেই আশার আলো দেখালেন প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের নতুন সভাপতি গৌতম পাল। হাইকোর্টের পরামর্শ মেনে সভাপতির পদ থেকে সরানো হয়েছে মানিক ভট্টাচার্যকে। তার জায়গায় কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ উপাচার্যকে নিয়োগ করেছে সরকার। পাশাপাশি বদল করা হয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের কাঠামোতেও। গৌতম পালের নেতৃত্ব তৈরি হয়েছে ১১ সদস্যের অ্যাড হক কমিটি।

গৌতম বাবুর আরও বক্তব্য “নিয়োগে কোনও অস্বচ্ছতা থাকবে না। আমাদের নীতি হবে ‘জিরো গ্রিভান্স’।” ২০১৪ সাল ও ২০১৭ সালের টেট পাশ পরীক্ষার্থীরা আন্দোলনে নেমেছেন। ইতিমধ্যেই তাদের কথা হয়েছে শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে। সেই সমস্ত চাকুরিপ্রার্থীরা যদি কথা বলতে চান তাদের সঙ্গেও কথা বলতে প্রস্তুত নতুন সভাপতি।

প্রতিবছর যেমন টেট নেওয়ার কথা তিনি জানান তেমনই নিয়ম মেনে নিয়োগ প্রক্রিয়া স্বচ্ছ করায় জোর দেওয়ার কথাও তিনি বলেন। তবে নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে কোনও প্রশ্নের জবাব দেননি নতুন সভাপতি। তাঁর সাফ কথা , অনেক বিষয় এখন আদালতের বিচারাধীন। তাই তিনি কোনও মন্তব্য করবেন না।

গৌতম পালের নেতৃত্বে ১১সদস্যের অ্যাড হক কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটির সদস্যদের মধ্যে যারা রয়েছেন তারা হলেন প্রাক্তন অধ্যাপক তথা পুরাণবিদ ডা. নৃসিংহপ্রসাদ ভাদুড়ী, ভাষা শিক্ষাবিদ ডা. স্বাতী গুহ, স্কুল শিক্ষা বিশেষজ্ঞ কমিটির চেয়্যারম্যান অভীক মজুমদার, অধ্যাপক রঞ্জন চক্রবর্তীরা। পাশাপাশি, রাজ্যের জয়েন্ট এন্ট্রান্স বোর্ডের চেয়ারম্যান মলয়েন্দু সাহা, মাধ্যমিক শিক্ষা পর্ষদের চেয়ারম্যান এবং উচ্চ শিক্ষা সংসদের চেয়ারম্যানকেও অ্যাড হক কমিটির সদস্য করা হয়েছে। রাজ্যের তিনটি স্কুলের তিন শিক্ষক-শিক্ষিকাও এই কমিটিতে স্থান পেয়েছেন। কমিটির সঙ্গে কথা বলে স্বচ্ছতার সঙ্গে পর্ষদের জরুরি বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানান গৌতমবাবু।

২০১৪ সালের প্রাথমিক টেটে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ, পরীক্ষা না দিয়েই অনেকে চাকরি করছেন। ২৬৯ জনের নিয়োগে দূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। হাই কোর্টের নজরদারিতে মামলার তদন্ত শুরু করেছে সিবিআই। যে হারে দূর্নীতি মামলায় পর্ষদ বিদ্ধ তাতে নতুন সভাপতির প্রতি বছর টেট নেওয়ার প্রতিশ্রুতি চাকুরিপ্রার্থীদের মনে কতটা আশার আলো জাগাতে তা অবশ্য সময়ই বলবে।