Date : 2022-12-03

ডেঙ্গি প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় সচেতনতা

শাহিনা ইয়াসমিন, সাংবাদিক: গত সপ্তাহে রাজ্যে ডেঙ্গি আক্রান্ত হয়েছেন ১২৫০ জন। ডেঙ্গির পজিটিভিটি রেট ১০.৫ থেকে বেড়ে হয়েছে ১৩ শতাংশ। এই পরিস্থিতিতে সংক্রমণ থেকে বাঁচতে একমাত্র পথ সচেতনতা, জানাচ্ছেন চিকিৎসকরা।

প্রতিদিন বেড়ে চলেছে ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা। রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, রাজ্যে ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা ৫,৮৮০। গত সপ্তাহে রাজ্যে ডেঙ্গি আক্রান্ত হয়েছেন ১২৫০ জন। ডেঙ্গির পজিটিভিটি রেট ১০.৫ থেকে বেড়ে হয়েছে ১৩ শতাংশ। সবচেয়ে বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন উত্তর চব্বিশ পরগনায়। এই পরিস্থিতিতে ডেঙ্গি প্রতিরোধে প্রয়োজন সচেতনতা। তাই ডেঙ্গু প্রতিরোধে সবারই সচেতন থাকা জরুরি।

এক্ষেত্রে মাথায় রাখুন কয়েকটি বিষয়-
১. হাত-পা ঢেকে রাখুন:
মশার কামড় থেকে বাঁচতে ফুল প্যান্ট, ফুলহাতা পোশাক পরতে হবে। শরীর ঢেকে রাখতে হবে।

২. জল জমতে দেবেন না:
বাড়ি বা বাড়ির আশে পাশে যাতে জল না জমে সেদিকে নজর দিতে হবে। এক ছিপি জমা জলেও বংশবিস্তার করতে পারে এডিস মশা। তাই ফুলের টব থেকে নর্দমায় যাতে জল না জমে, সেদিকে নজর দিতে হবে।

৩. মশা তাড়াতে মাছ ছাড়তে হবে:
মশার লার্ভা খেয়ে জল পরিষ্কার রাখে গাপ্পি মাছ। তাই জলাশয়ে গাপ্পি মাছ ছাড়তে হবে।

৪. ডাস্টবিন পরিষ্কার রাখুন:
আবর্জনা ফেলার পাত্র বা ডাস্টবিন নিয়মিত পরিষ্কার রাখতে হবে। ডাস্টবিনের মুখ ঢেকে রাখতে হবে। এছাড়া ঘরের কোণা, বাগান ইত্যাদিও নিয়মিত পরিষ্কার রাখতে হবে।

৫. মশা তাড়ানোর ওষুধ ব্যবহার করুন:

মশা তাড়ানোর জন্য স্প্রে, মলম ইত্যাদি ব্যবহারে করতে হবে। বিশেষ করে শিশুদের ক্ষেত্রে এগুলো ব্যবহার করা আবশ্যিক।

৬. দরজা-জানালা বন্ধ রাখুন:

ঘরের দরজা-জানালা বন্ধ রাখুন। আর জানালা খোলা রাখলেও জানালায় নেট ব্যাবহার করুন। সকাল হোক বা বিকেল সব সময় এডিস মশার উপদ্রব থাকে।

৭.ইউমিনিটি বুস্টার:

ডেঙ্গি প্রতিরোধে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির প্রয়োজন। সেজন্য স্বাস্থ্যকর খাদ্য খেতে হবে। ডেঙ্গির এখনও পর্যন্ত কোনো ওষুধ বের হয়নি। সেজন্য সচেতনতাই একমাত্র হাতিয়ার।

চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন উলবেকিয়া নামক একটি ব্যাকটেরিয়া আছে। যেটা মশার মধ্যে ঢুকিয়ে দিলে ডেঙ্গির মশা কে বাড়তে দেবে না। পাশাপাশি সাধারণ মানুষ ও কর্পোরেশন কেও সজাগ থাকতে হবে। ডেঙ্গি বিস্তারে ৯০ থেকে ৯৫ শতাংশ ভূমিকা রাখে এডিস মশা। এই মশার একটি কামড়ই ডেঙ্গি সংক্রমণের জন্য যথেষ্ট। তাই সচেতন না হলে ডেঙ্গির হাত থেকে রেহাই নেই। এমনটাই জানাচ্ছেন চিকিৎসকরা।