Date : 2022-12-03

মিড ডে মিলের বরাদ্দ বাড়ল।এই বরাদ্দ বাড়ানোকে প্রহসন হিসেবেই দেখছেন শিক্ষকমহল।

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক:- নিত্যদিন বেড়েই চলেছে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম। এই অবস্থায় মিড-ডে মিল খাতে বরাদ্দ বাড়ালাও কেন্দ্রীয় সরকার। প্রাথমিকে বাড়ানো হয়েছে ৪৮ পয়সা আর উচ্চ প্রাথমিকে বেড়েছে ৭২ পয়সা। এই বরাদ্দ বাড়ানোকে প্রহসন হিসেবেই দেখছেন শিক্ষকমহল।

শিশুদের পুষ্টির খামতি মেটাতে সরকারি, সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত ও সরকার পোষিত স্কুলগুলিতে দেওয়া হয় মিড ডে মিল। প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণির পড়ুয়াদের দেওয়া হয় এই খাবার।
কিন্তু মাথাপিছু পড়ুয়ার মিড ডে মিলের বরাদ্দ টাকা যথেষ্ট নয় বলে বারবার দাবি তুলেছেন শিক্ষকমহল। ২০২০পর ফের বাড়ল মিড ডে মিলের বরাদ্দ টাকা। প্রাথমিকে বাড়ানো হয়েছে ৪৮ পয়সা আর উচ্চ প্রাথমিকে ৭২পয়সা।

প্রাথমিকে পড়ুয়া পিছু ৪৮ পয়সা বেড়ে ৪ টাকা ৯৭ পয়সা থেকে ৫ টাকা ৪৫ পয়সা হয়েছে। যার মধ্যে কেন্দ্র দেবে ৩টাকা ২৭ পয়সা আর রাজ্যগুলি দেবে ২টাকা ১৮ পয়সা।
উচ্চ প্রাথমিকে পড়ুয়া পিছু ৭২ পয়সা বেড়ে ৭টাকা ৪৫ পয়সা থেকে হয়েছে ৮টাকা ১৭ পয়সা। যার মধ্যে কেন্দ্র দেবে ৪টাকা ৯০পয়সা আর রাজ্যগুলি দেবে ৩টাকা ২৭ পয়সা।

বাজারমূল্য দেখে মিড ডে মিলের বরাদ্দ বাড়ানো হয়নি বলেই মত রাজ্যের বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকাদের। রান্নার গ্যাস সহ খাদ্য দ্রব্য সবেই বেড়েছে দাম। এই অবস্থায় মিড-ডে মিলের বরাদ্দ টাকা যথেষ্ট নয় বলে মত শিক্ষকমহলের।

বর্তমানে ডিম ৬টাকা, আলু ২৮ থেকে ৩০ টাকা কিলো। বেড়েছে তেল সহ রান্নার অন্যান্য সামগ্রীর দাম। তাই বাজারদরকে মাথায় রেখে বাড়ানো হোক পড়ুয়া পিছু মিড ডে মিলের টাকা এমনটাই দাবি শিক্ষকমহলের।