Date : 2022-12-03

পেঁপের উপকারিতা এবং অপকারিতা।

শাহিনা ইয়াসমিন, সাংবাদিক : পেঁপে ওজন কমানোর মোক্ষম সবজির মধ্যে একটি। ওজন কমানো থেকে শুরু করে ত্বকের সমস্যা সবেতেই পেঁপের বহু গুণ আছে। পেঁপে খান না এমন বাঙালি হাতে গোনা। তবে পেঁপে খাওয়ার ফলে অনেকেই সমস্যায় পড়তে পারেন। পেঁপেতে ফাইবার, ভিটামিনের মতো অনেক পুষ্টি উপাদান পাওয়া যায় যা হজমের অবস্থার উন্নতি ঘটায়। এটি গুরুতর রোগের জন্য একটি ওষুধও প্রমাণিত হয়। যেমন জন্ডিসে পেঁপে উপকারিতা। কিন্তু জানে কি কখন পেঁপে খাওয়া উচিত নয়। বা কোন কারণে পেঁপে খেলে সমস্যা হতে পারে। সেটা জেনে নিন।
এলার্জি :
পেঁপে নানা উপকারে আসে।
গরম শীতে এই ফল দেখা যায়। যদিও এই সবজি বর্ষাকাল হয়। খুব গরমে এই সবজি থাকে না। যদি ত্বকের সমস্যা থাকে, তবে পেঁপেকে খাওয়া এড়িয়ে চলুন। কারণ, এতে কাইটোনেজ নামক একটি এনজাইম রয়েছে, যা ল্যাটেক্সের উপর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া করতে পারে। এতে শ্বাস কষ্ট, হাঁচি ও কাশির সমস্যা বাড়াতে পারে।

কিডনিতে পাথর:
অনেকেই কিডনিতে পাথরের সমস্যায় ভোগেন। যদি কিডনিতে পাথরের সমস্যা থাকে, তাহলে এই অবস্থায় পেঁপে খাবেন না। কারণ অতিরিক্ত পরিমাণে পেঁপে খেলে ক্যালসিয়াম অক্সালেট তৈরি হতে পারে। এতে কিডনিতে পাথর বাড়তে পারে। এটি আপনার মূত্রনালীতে জ্বালা এবং রক্তপাতের কারণ হতে পারে।

গর্ভবতী মহিলা:
পেঁপে খাওয়া অবশ্যই উপকারী। কিন্তু গর্ভবতী মহিলাদের না খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। কারণ পেঁপেতে ল্যাটেক্স থাকে। এটি সরাসরি জরায়ুর ক্ষতি করে। এর জেরে শিশুর ক্ষতি হতে পারে। এতে উপস্থিত প্যাপেইন গর্ভবতী মহিলাদের জন্যও ক্ষতিকর।

তবে এতো সমস্যার মধ্যেও যাদের এই সব সমস্যা নেই। যারা ওজন কমাচ্ছেন তাদের জন্যে পেঁপে উপকারী। এমনকি আমরা বিরিয়ানির মাংস, মাংসের চাপ, বা মাংস গলানোর জন্য পেঁপে বাটা মাংসে মাখিয়ে রাখলে অর্থাত ম্যারিনেট করে রাখলে তাড়াতাড়ি মাংস নরম হয়ে যায়।

এছাড়া প্রত্যেক সবজি উপকারির পাশাপাশি পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া আছে। তাই চিকিৎসক এর সঙ্গে পরামর্শ নেওয়া উচিত।