Date : 2023-01-28

কোর্ট বয়টকট নিয়ে বিচারপতি মান্থার এজলাসে কি কেন্দ্রীয় বাহিনী প্রয়োজন আছে? হাইকোর্টে জানালেন ডেপুটি সলিসিটর জেনারেলের।

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়, সাংবাদিক : বয়কট নিয়ে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের। প্রধান বিচারপতির এজলাসে তিল ধারণের জায়গা ছিল না মঙ্গলবার সকালে। একদিকে বয়কট বিরোধী। অন্য দিকে বয়কট পন্থীদের ভিড়ে ঠাসা ছিল এজলাস।

আইনজীবী বিকাশ রঞ্জন ভট্টাচার্য: মামলার নথি জমা দিয়ে কাল ও আজ ১৩ নম্বর এজ লাশের সামনে অব্যবস্থা ছবি পোস্টার তুলে দেন। বিচারপতি মান্থার বাড়ির সামনের পোস্টার অংশ তুলে দেখান। যে ঘটনা ঘটনা হয়েছে তাতে রুল ইস্যু করে জবাব চাওয়া হোক। ১৩নম্বর এজলাসে বয়কট নিয়ে আসরে মধ্যস্থ হিসেবে হাজির আইনজীবী সপ্তাংশু বসু বলেন ঘটেছে তাতে জাস্টিফাই করার কোনো কারণ নেই। এখানেই এটা নিষ্পত্তি করা হোক। কারণ যা ঘটেছে সেটা আড়াল করার চেষ্টা সিনিয়র মেম্বার হিসেবে করছি না। বার কোনো মিটিং করেনি। যা ঘটেছে সেটা অবাঞ্ছিত। আর না ঘটে সেটা দেখার দরকার। কিন্তু কিছু স্টেপ হলে সেটা আমাদের সহকর্মীদের জন্য খারাপ হবে।
প্রধান বিচারপতি :-কেন কাল আপনারা এটা আটকান বার অ্যাসোসিয়েশনের এক সদস্য আমাদের চিঠি দিয়েছেন। আপনারা চিৎকার করছেন। (বয়কট পন্থীদের তুমুল হট্টগোল।) বিরক্ত করছেন কোর্টকে। এটা কিন্তু আমরা রেকর্ড করবো, সেটা ভালো হবে না, বয়কটকারী আইনজীবীদের পক্ষে।

ডেপুটি সলিসিটার জেনারেল বিল্লদল ভট্টাচার্য: তুমুল ভিড় গেটের বাইরে। সেখানে দুজন মহিলা কনস্টেবল রাখা আছে। আদালত চাইলে কেন্দ্র সেন্ট্রাল ফোর্স দিতে তৈরি।
আমাদের কাছে আবেদন জমা পড়েছে। হাইকোর্টে রেজিস্ট্রেট জেনারেল এর কাছে আপনারা আপনাদের আবেদন পত্র জমা দিন এ বিষয়ে বিচার করবো।