Date : 2024-05-26

গুণে ভরা পেঁয়াজের খোসা

সঞ্জনা লাহিড়ী, সাংবাদিক – রান্নায় নিত্য ব্যবহারের সবজি হিসেবে পেঁয়াজ অপরিহার্য। পেঁয়াজে তো বটেই, পেঁয়াজের খোসায়ও রয়েছে নানান গুণাবলী। তবে এর ব্যবহার কেউই করেন না। অনেক বাড়িতেই নিয়মিত পেঁয়াজ এবং রসুন দিয়ে রান্না হয়। রান্নার আগে পেঁয়াজের খোসা ছাড়িয়ে কেটে নেওয়া হয়। পেঁয়াজের বহু গুণ আছে এ কথা অনেকেই জানেন। কিন্তু পেঁয়াজের সেই খোসা? তার স্থান হয় আবর্জনার মধ্যেই। যদিও পেঁয়াজের খোসার গুণের কথা জানলে এর পরে এমন কাজ আর করবেন না। পেঁয়াজের খোসা নানা কাজে লাগতে পারে। পাকা চুল কালো করা থেকে শুরু করে, গাছের সার হিসেবে কাজে লাগতে পারে এই খোসা।

১) মেদ ও রক্তচাপের জন্য ভাল: পেঁয়াজের খোসার চা আপনার ত্বক ও স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী হতে পারে। এটি মেদ, স্থূলতা, উচ্চ রক্তচাপ এবং সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করে আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতেও সাহায্য করে। এই চা তৈরি করতে, আপনাকে ১০ থেকে ২০ মিনিটের জন্য পেঁয়াজের খোসার জল সিদ্ধ করতে হবে। এর পরে ছেঁকে খোসা সরিয়ে ফেলুন। আপনার পেঁয়াজ চা প্রস্তুত।

২) ত্বকের চুলকানি থেকে মুক্তি: পেঁয়াজের খোসার মধ্যে উপস্থিত ঔষধি গুণ ত্বকের চুলকানি থেকে মুক্তি দিতে পারে। পেঁয়াজের খোসায় উপস্থিত অ্যান্টিফাঙ্গাল বৈশিষ্ট্য আপনার ত্বকে চুলকানি, ফুসকুড়ি এবং অ্যাথলেটের দাগ কমাতে সাহায্য করে। এই ধরনের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পেঁয়াজের খোসার জল ত্বকে লাগাতে পারেন।

৩) চুলে রং করতে: পেঁয়াজের খোসা শুধুমাত্র চুলের বৃদ্ধিই করে না, এটি দুর্দান্ত মানের প্রাকৃতিক হেয়ার ডাইও। এটি সুন্দর সোনালি বাদামি রং দেয়। এটি তৈরি করতে, আপনাকে পেঁয়াজের খোসা প্রায় এক ঘণ্টা সিদ্ধ করতে হবে। এর পর সারা রাত ঠাণ্ডা হওয়ার জন্য রেখে দিতে হবে। পরের দিন এই জল ফিল্টার করে চুলে লাগান। চুল ধোয়ার আগে ৩০ মিনিট শুকাতে দিন।

৪) গাছের সার: ঘরের বা বাইরের গাছের জন্য পটাসিয়াম সমৃদ্ধ সার তৈরি করতে পেঁয়াজের খোসা কাজে লাগতে পারে। এই খোসা ফেলে দেওয়ার পরিবর্তে গাছের গোড়ায় ব্যবহার করুন। গাছের উন্নতি হবে, ডালপালা শক্তিশালী হবে, ফল উৎপাদনের পরিমাণ বাড়বে।

৫) চুলের বৃদ্ধি: অনেকেই চুল পড়ার সমস্যায় ভুগে থাকেন। এমন পরিস্থিতিতে পেঁয়াজের খোসা আপনার চুলের বৃদ্ধি করতে সাহায্য করবে। এজন্য খোসা সিদ্ধ করতে হবে। এই জল দিয়ে চুল ধোয়ার ফলে আপনার চুল দ্রুত বাড়ে এবং খুশকির সমস্যাও দূর হয়।