Date : 2023-01-28

বন্ধু আবার দেখা হবে লড়াইয়ের ময়দানে


সৌদি আরব মিলিয়ে দিল দুই কিংবদন্তীকে। রিয়াধ কাপে জীবনের এক অদ্ভুত সন্ধিক্ষণে এনে দাঁড় করালো ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো এবং লিওনেল মেসিকে। আর কখনও দুই ফুটবলার বিশ্বফুটবলের মঞ্চে মুখোমুখি হবেন কিনা তার উত্তর জানা নেই কারোর কাছেই। তবে এই ম্যাচ খেলে রোনাল্ডো, মেসিরা কতটা উচ্ছসিত তা প্রকাশ পেয়েছে তাঁদের শরিরি ভাষা এবং কথা বার্তায়। সৌদিতে যাওয়ার পর রোনাল্ডোর ভবিষ্যত্ নিয়ে সন্ধিহান ছিল গোটা ফুটবল দুনিয়া। রোনাল্ডো নিজেও হয়ত ইউরোপের বিভিন্ন ক্লাব থেকে প্রত্যাখ্যাত হওয়ার পর নিজের ভবিষ্যত্ নিয়ে চিন্তায় ছিলেন। তবে সব চিন্তাই মিলিয়ে গেল মেসির বিরুদ্ধে মাঠে নামার সঙ্গে সঙ্গেই।এক অনাবিল আনন্দের পিঠস্থান হিসেবে উদভাসিত হল সৌদির কিং ফাহাদ স্টেডিয়াম। যেখানে লিওনেল মেসি করলেন এক গোল। জেতালেন দলকে। জোড়া গোল করলেন পর্তুগিজ সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। তবে চ্যাম্পিয়ন্স লাকের ভাগ্য এবারও সহায় হল না সিআরসেভেনের। জোড়া গোল করেও ট্র্যাজিক হিরোর মতোই রয়ে গেলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। চোট পেলেন কিন্তু উঠলেন না মাঠ থেকে। খেললেন এবং গোল ও করলেন। ম্যাচ শেষে প্রীয় বন্ধু এবং ফুটবল বিশ্বে তার চিরপ্রতিদ্বন্দীর স্টাম্প মেরে দেওয়া লিওনেল মেসির সঙ্গে ছবি পোস্ট করলেন সোশাল মিডিয়ায়। সঙ্গে ছোট্ট কয়েকটি শব্দে রোনাল্ডো লিখলেন, মাঠে ফিরতে পেরে এবং গোলের খাতায় নাম লেখাতে পেরে অত্যন্ত উচ্ছসিত। পুরোনো বন্ধুদের দেখে খুবই ভালো লাগছে। ম্যাচের আগে এবং পরে অনেক সময়ই মেসি, সার্জিও র্যামোসের সঙ্গে দেখা গেল রোনাল্ডোকে। হয়ত ঠান্ডা গলায় বলে দিলেন একে অপরকে, বন্ধু আবার দেখা হবে, মিলনসাগরের ময়দানে।