Date : 2024-06-13

বিচারপতির এজলাস বয়কট মামলাপুলিশের ভূমিকায় ক্ষোভ উগরে দিলেন বৃহত্তর বেঞ্চ

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়, সাংবাদিক :

বিচারপতি টি এস শিবগানাম : কেউ বাঁচতে পারবে না। ওই ছয় জন কারা? তারা টাকার বিনিময়ে এই কাজ করতে পারে। তারা শক্তিশালী হতে পারে। কারা তারা? কি জন্য এই কাজ করেছে? হলফনামা দিয়ে জানান।

বিচারপতি চিত্তরঞ্জন দাশ অরুণাভ ঘোষ কে প্রশ্ন করলেন আপনি কি আদালতের সাথে সৎ আচরণ করছেন?
যে ৮৬ জনের নাম সিল কভারে দেওয়া হয়েছে তাদের আমি চিনতে পারছি না।
বিচারপতি চিত্তরঞ্জন দাস: আমরা কিন্তু জানি কি করে চিনতে হয়।
এই ৮৬ জন করা?
নিজে থেকে সামনে আসুন। নাহলে আমরা চিনে নেবো।
বিচারপতি টি এস শিবগানাম : আমাদের মনে হয় এতজন নয় মাত্র১২ থেকে ১৩ জন এই কাজ করেছে।
কিন্তু বার অ্যাসোসিয়েশনকে কারা ওই দিন এজলাসের সামনে ছিল তাদের চিহ্নিত করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। তিনটি সিল কভারে নাম দেওয়া হয়েছে 86 জনের নাম দেওয়া হয়েছে। গোটা প্রক্রিয়াকে নষ্ট করে দিলো।
নির্দেশ
ওই দিন কারা ১৩ নম্বর এজলাসের সামনে ঝামেলার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন তাদের এবার বার কাউন্সিল চিনহিত করবে। সেদিন করা ঝামেলার সঙ্গে যুক্ত ছিল। এবং যেহেতু বার কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়া ইতিমধ্যেই এ বিষয়ে তদন্ত করেছে তাই তারাও তিন সপ্তাহ পর যৌথ ভাবে রিপোর্ট জমা দেবে। তারা মনে করলে নিজে থেকে তদন্ত চালিয়ে যেতে পারে।
জি পি জানালেন কোন প্রেস থেকে ওই পোস্টার ছাপান হয়েছিল তা জানা গিয়েছে। কিন্তু তদন্তে এত সময় লাগার জন্য অসন্তুষ্ট আদালত। বিচারপতির পর্যবেক্ষণ এটা ওই জল নোটের তদন্ত হচ্ছে?
তিন সপ্তাহ সময় দেওয়া হলো। এই সময়ের মধ্যে তদন্ত শেষ করতে হবে।