Date : 2024-02-21

সূর্যের তাপ থেকে ত্বককে বাঁচানোর উপায়

সঞ্জনা লাহিড়ী, সাংবাদিক- শহরের তাপমাত্রা প্রায় ৪০। দক্ষিণের জেলাগুলোয় তাপমাত্রা ৪০ পেরিয়েছে। পাল্লা দিয়ে বেড়েছে সূর্যের তাপ। দিনের বেলা বাড়ি থেকে বেরোনো দায় হয়েছে। তবে কাজের জন্য যাঁরা প্রতিদিন দিনের বেলা বেরোচ্ছেন, সূর্যের তাপে তাঁদের ত্বকের ক্ষতি হচ্ছে কয়েক গুণ বেশি। গরমের দিনে সূর্যরশ্মির প্রভাবে ত্বকের নমনীয়তা কমে যায়। ত্বকে বার্ধক্য রেখার সৃষ্টি হয়। পাশাপাশি বয়সের ছাপ সহ নানান সমস্যা দেখা যায় ত্বকে। ত্বকের এই অকাল বার্ধক্যের জন্য সূর্যরশ্মির প্রভাব রয়েছে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।
তাই রোদে বেরোলে ত্বকের সুরক্ষা একান্ত প্রয়োজন। রোদের তাপ থেকে কিভাবে ত্বককে সুরক্ষিত রাখা যায় তা নিয়ে আলোচনা করা যাক।
১) সকাল ১১টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত সূর্যের তাপ তীব্র থাকে। এই সময়ে সূর্যরশ্মি শক্তিশালী থাকে, বিশেষ করে অতি বেগুনী রশ্মির প্রভাব থাকে তীব্র। তাই এই সময়টায় ত্বকের ক্ষতি হয় সব থেকে বেশি। তাই প্রয়োজন ছাড়া সকাল ১১টা থেকে ৪টের সময়টা এড়িয়ে চলা প্রয়োজন।
২) গরমে সূর্যের তাপ প্রখর হওয়ায় ত্বকের সুরক্ষার জন্য সানস্ক্রিন ব্যবহার করা জরুরী। রোদ থেকে ত্বককে সুরক্ষা দিতে ও অকাল বার্ধক্য এড়াতে সানস্ক্রিনের ব্যবহার একান্ত প্রয়োজন।
৩) সানস্ক্রিন মাখার পর রোদে বেরোলে তা ২-৩ ঘণ্টা স্থায়ী হয়। ত্বককে ভাল রাখতে ২-৩ ঘণ্টা অন্তর সানস্ক্রিন ব্যবহার করা দরকার।
৪. দিনের বেলা বাইরে বের হলে ঢাকা পোশাক বা ফুল হাতা পোশাক পরে বের হওয়া জরুরী। এই পোশাক সূর্যরশ্মি থেকে সুরক্ষিত রাখবে। বিশেষ করে হালকা সুতির পোশাক সব থেকে ভাল।
৫. আমাদের শরীরের অন্যান্য অংশের থেকে মুখমণ্ডলের ত্বক বেশি সংবেদনশীল হয়। তাই রোদের তাপে মুখের ত্বকেরই বেশি ক্ষতি হয়। তাই মাথায় টুপি বা ছাতা এবং চোখে সানগ্লাস থাকলে মুখের ত্বক অনেকটাই সুরক্ষিত থাকে। ফলে ত্বকে বলিরেখা বা বার্ধক্যের ছাপ কম পড়ে। ওড়না দিয়ে মাথা ও মুখ ঢেকেও বাইরে বেরোনো যেতে পারে।