Date : 2024-02-25

আন্দোলনে মাঝে আটকে যাবে পরীক্ষা! পুলিশ দেখেও কেন দেখছে না! বিচারপতি

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়,সাংবাদিক : বাবা সাহেব আম্বেদকর এডুকেশনাল ইউনিভার্সিটি অচলাবস্থা। রাজ্যের সব বি এড কলেজ এই বিশ্ব বিদ্যালয়ের অধীন। মতুয়া, মৌলবী, দলিত ছাত্রদের সামনে রেখে আন্দোলনের নামে আচালবস্থা শুরু হয়েছে। বি এড প্র্যাক্টিক্যাল পরীক্ষা কাল থেকে। গেটের বাইরে আন্দোলন চলছে। নিরাপত্তা রক্ষীদের মারধর করা হয়েছে। বিশ্ব বিদ্যালয়ের গেট কার্যত বন্ধ। বিচারপতি জয় সেনগুপ্ত: পুলিশ কি করে অনুমতি দিল। মঞ্চ বাধা হয়েছে তার ম্যাপ নেওয়া হয়েছে? গেটের মুখে কি করে এই ধরনার অনুমতি দেওয়া হলো!
বিচারপতি সেনগুপ্তর নির্দেশ, এটা স্পষ্ট নয়, কি করে এমন জায়গায় এমন একটা ধরনার অনুমতি দেওয়া হলো! এই নিয়ে পুলিশকে রিপোর্ট দিতে হবে। কোনোভাবে পরীক্ষা যাতে বন্ধ না হয় তার ব্যবস্থা করতে হবে পুলিশকে। পরীক্ষার্থীদের কোনোভাবে বাধা দেওয়া যাবে না। স্বসস্ত্র পুলিশ নিরাপত্তা রাখতে হবে। ওই ধর্না থেকে কোনো প্ররোচনা মূলক মন্তব্য, অশান্তির চেষ্টা যাতে না হয় সেটা পুলিশকে নিশ্চিত করতে হবে। ৯ জানুয়ারি পরিবর্তী শুনানি।
৬২৪ টির মধ্যে, ২৫৩ টি বি এড কলেজ শর্ত না মানায় এ বছর বিশ্ব বিদ্যালয়ের অনুমোদন পায় নি। অনুমোদন না পাওয়ায় বিশ্ব বিদ্যালয়ে আন্দোলন শুরু করে। যার জেরে পঠন পঠন বন্ধ। বিষয়টি নিয়ে অধ্যক্ষ রাজ্য সরকার, পুলিশের কাছে অভিযোগ জানান। কাল থেকে সেখানে পরীক্ষা। কিন্তু আন্দোলনের জেরে সেই পরীক্ষা এখন অনিশ্চিত। পুলিশ কোনো অভিযোগ নিচ্ছে না।