Date : 2024-02-25

চাষীদের থেকে ধান কিনতেন মন্ত্রী

সঞ্জনা লাহিড়ী, সাংবাদিক- মঙ্গলবার সল্টলেকের অরণ্য ভবনে তল্লাশি চালিয়ে একাধিক নথি উদ্ধার করে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের আধিকারিকরা। ইতিমধ্যেই প্রায় ৭০০ ব্ল্যাঙ্ক স্ট্যাম্প পেপার পাওয়া গেছে মন্ত্রীর অফিস থেকে। মিলেছে ১০ কোটি টাকার ফিক্সড ডিপোজিট ও জীবন বিমার নথি। এই তল্লাশিতেই উঠে এসেছে আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য। কম টাকায় চাষীদের থেকে ধান কিনে খোলা বাজারে বেশি দামে বিক্রি করতেন বালু। এমন তথ্যই উঠে এসেছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দাদের কাছে।

বন দফতরের অফিসে অভিযান চালিয়ে পাওয়া গেছে এই সংক্রান্ত তথ্যের নথি বলে ইডি সূত্রে খবর। এই লেনদেনের নথিতে বাকিবুর রহমানের যোগ রয়েছে বলে দাবি তদন্তকারী আধিকারিকের। ইডি সূত্রে জানা গেছে, জ্যোতিপ্ৰিয় মল্লিক ক্ষমতা বলে অনৈতিকভাবে ধান কেনা বেচা করতেন। ১ কোটি টাকারও বেশি ধান বিক্রির নথি মন্ত্রীর নিজের অফিসে রাখা ছিল বলে দাবি ইডি আধিকারিকদের। ধান বিক্রি হত বাকিবুরের মাধ্যমে। বাকিবুরের মতো চালকল ব্যবসায়ীরা কম টাকায় কেনা ধান থেকে চাল বের করে তা বেশি দামে বিক্রি করত বাজারে। তবে চাষীদের সঙ্গে মন্ত্রীর মধ্যস্থতা কে বা কারা করতেন? কিভাবেই বা করা হত? কোন কোন এলাকার চাষীদের থেকে কম দামে ধান কেনা হত তা খতিয়ে দেখছেন ইডি আধিকারিকরা।