Date : 2024-02-24

সিদ্ধান্ত সঠিক ছিল বলছেন স্যান্তোস

কাতার বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোকে বসিয়ে রাখা নিয়ে এবার মুখ খুললেন তৎকালীন কোচ ফার্নান্দো স্যান্তোষ। 1 বছরেরও বেশি সময় কেটে গেলেও এখনও নিজের সিদ্ধান্তেই অনড় এই পর্তুগিজ কোচ। রোনাল্ডোকে রিজার্ভ বেঞ্চে বসিয়ে রাখতে গিয়ে পর্তুগাল দল মরোক্কোর বিপক্ষে হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেয়। যতক্ষণে রোনাল্ডোকে তিনি মাঠে নামিয়েছিলেন ততক্ষণে অবশ্য অনেক দেরি হয়ে গেছিল। চোখের জনে মাঠ ছাড়েন রোনাল্ডো। এরপর বিশ্বকাপ থেকে হারের জেরে ফার্নান্দো স্যান্তোসকে সরিয়ে দেয় পর্তুগালের নিয়ামক সংস্থা। নতুন কোচ হন রবার্তো মার্তিনেজ। যদিও স্যান্তোষ মনে করছেন তার সরে যাওয়ার পিছনে রোনাল্ডোর হাত নেই। কারণ রোনাল্ডো নিজে ব্যক্তিগতভাবে কখনই চাইবেন না তাকে সরিয়ে দেওয়া হোক। স্যান্তোস বলছেন,রোনাল্ডোকে প্রথম একাদশে না রাখার সিদ্ধান্ত ছিল একান্তই ট্যাকটিকাল ও টেকনিকাল। এখানে অন্য কোনওরকম কারণ ছিল না। স্পষ্টতই বুঝিয়ে দিলেন যে তার এবং রোনাল্ডোর মধ্যে ইগোর ক্ল্যাশ নিয়ে যে প্রশ্ন উঠছিল, সেটা ভিত্তিহিন। স্যান্তোস আরও বলছেন, সেদিন যদি পর্তুগাল ম্যাচ জিতে যেত তাহলে এসব নিয়ে আলোচনাই হত না। তার কাছে দলের স্বার্থই গুরুত্বপূর্ণ, এবং দলের স্বার্থেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। উল্লেখ্য ইউরো কোয়ালিফায়ারে এখনও পর্যন্ত 9 ম্যাচে 10 গোল করেছেন রোনাল্ডো। অথচ সেই রোনাল্ডোকেই গনকালো রামোসের জন্য রিজার্ভ বেঞ্চে বসতে হয়েছিল কাতার বিশ্বকাপে। ফলও হাতে নাতে পেয়েছিল পর্তুগিজ শিবির। মার্তিনেজ অবশ্য রোনাল্ডোর পাশেই দাড়িয়েছেন সব সময়।