Date : 2024-05-26

দমদম লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী সৌগত রায়ের সমর্থনে বর্ণাঢ্য মিছিলে বিতর্কিত ছবি

বিশ্বজিৎ পাল, সাংবাদিক : দমদম লোকসভা কেন্দ্র থেকে চতুর্থবারের জন্য প্রার্থী হয়েছেন প্রফেসর সৌগত রায়। এর আগে তিনি পরপর তিনবার দমদম লোকসভা কেন্দ্র থেকে জয়লাভ করেছিলেন। এর আগে কখনোই তাকে কঠিন প্রতিদ্বন্দীতার সম্মুখীন হতে হয়নি। এবারের লড়াই তাই তিন হেভিওয়েটের মধ্যে। একদিকে বাম প্রার্থী সুজন চক্রবর্তী অপরদিকে বিজেপি প্রার্থী শিল ভদ্র দত্ত। গত লোকসভায় বামেরা বেশি ভোট কাটতে পারেনি। তাদের ভোট পৌঁছে গিয়েছিল বিজেপিতে। এবার তাদের হেভিওয়েট প্রার্থী সুজন চক্রবর্তী। তিনি যদি বাম সমর্থকদের ভোট পান তাহলে জেতার রাস্তাটা অনেকটাই মসৃণ হবে সৌগত রায়ের।

এখনো অবধি যেটা দেখা যাচ্ছে, সৌগত রায় অনেকের থেকেই প্রচারে অনেকটা এগিয়ে। কখনো বা তাকে দেখা যায় মন্দিরে কখনো বা দেখা যায় সুইমিংপুলে। সকাল থেকেই বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার পাশাপাশি একাধিক পদযাত্রা তেও দেখা যাচ্ছে তাকে। এরই মাঝে বিরোধীদের কটাক্ষ করতেও ছাড়ছেন না তিনি। কখনো বলছেন তার বিরোধীরা তো মাধ্যমিকই পাস করতে পারেনি, উচ্চ মাধ্যমিক পাস করবে কি করে। বিধানসভা ভোটে জিততে পারেনি লোকসভা ভোটে কি করে জিতবে?

বুধবার দুপুরে দমদম লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী সৌগত রায়ের সমর্থনে দমদম বিধানসভার পক্ষ থেকে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার মাধ্যমে মিছিল করা হয়। সেই মিছিলে ধরা পড়ল বিতর্কিত ছবি। দেখা গেল দমদম এলাকার বিভিন্ন স্কুলের পড়ুয়ারা স্কুল পোশাক পরিহিত এবং তৃণমূলের প্রতীক হাতে নিয়ে সেই মিছিলে। রাজ্য সরকারের বিভিন্ন জনমুখী প্রকল্প থেকে শুরু করে পড়ুয়াদের জন্য যে সকল প্রকল্প রয়েছে তার ট্যাবলো বানিয়ে তাতে পড়ুয়াদের বসিয়ে প্রার্থীর সমর্থনে প্রচার করা হয়। যা নিয়েই বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। বুধবার কয়েক হাজার তৃণমূল কর্মীকে সাথে নিয়ে দক্ষিণ দমদমের ইন্দিরা ময়দান থেকে দমদম ক্যান্টনমেন্ট রেল মাঠ অবধি প্রচার চালান তিনি।
নির্বাচন কমিশনের নিয়ম অনুযায়ী নির্বাচনের কোনো কাজে ছোট শিশু বা স্কুল পড়ুয়াদের কোনরকম নির্বাচনের কাজে ব্যবহার করা যাবে না। এ বিষয়ে প্রাক্তন সাংসদ জানান, এরকম কোন বিধি-নিষেধ নেই। যারা এসেছে স্বতঃস্ফূর্তভাবে এসেছে। এ বিষয়ে যদি কেউ অভিযোগ করে করতেই পারে।