Date : 2020-10-26

বিনামূল্যে খেদুবাবুর গরম চপে পালন নেতাজি জয়ন্তী

কলকাতা: ঐতিহ্যে ঘেরা কলকাতায় স্বাধীনতা সংগ্রামীদের স্মৃতি বিজড়িত স্থানের অভাব নেই। শ্যামবাজার থেকে স্কটিশ চার্চ কলেজিয়েট স্কুলের দিকে যেতে গেলে চোখে পড়বে শতাব্দী প্রাচীন তেলেভাজার দোকান। নাম লক্ষী নারায়ন এন্ড সন্স, বর্তমান বয়স ১০১ বছর। ১৯১৮ সালে খেদু সাউ নামে এক ব্যক্তি এই দোকানের উদ্বোধন করেন।

গোটা দেশের মতো উত্তর কলকাতায়ও স্বদেশী আন্দোলনের ঢেউ উঠেছে তখন। ১৯৪২-এর ভারত ছাড়ো আন্দোলনে জরিত যুবক যুবতিদের সম্পূর্ণ বিনা পয়সায় তেলেভাজা সরবরাহ করতেন এই খেদু সাউ ওরফে লক্ষী নারায়ন সাউ। স্কটিশ চার্চে পড়ার সুবাদে এই দোকানে তেলেভাজা খাওয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন সুভাষ চন্দ্র বসু। দোকানের কর্ণধার কেষ্ট কুমার সাউ বললেন, নেতাজির জন্মদিনে বিনামূল্যে তার দাদু লক্ষী নারায়ন সাউ চপ খাওয়াতেন।

১৯৪৭ সালে দেশ স্বাধীন হওয়ার পর ঘটা করে নেতাজির জন্মদিনে চপ খাওয়াতেন লক্ষী বাবু। সেই ঐতিহ্য মেনে নেতাজির জন্মদিনে এখনো বিনামূল্যে চপ খাওয়ানো হয় এই দোকানে। নেতাজির জন্মদিনে আসলেই তাই আসে পাশে পরিচিত মানুষদের জন্য প্রতি বছর এই আয়োজন করে আসছে লক্ষী নারায়ন বাবুর উত্তরসূরীরা। তাই উত্তর কলকাতায় নেতাজির জন্মদিন বিনামূল্যে চপ খেয়ে ও প্রিয়জনকে খাইয়ে উজ্জাপন করতেই পারেন।