Date : 2020-10-26

চা-বাগানের “সাহেব”তন্ত্রে এবার প্রথম মেম মিসেস বড়ুয়া…

দিসপুর:প্রায় দুশো বছর আগে আসামে চা বাগান শুরু করেছিল ব্রিটিশরা। রেওয়াজ ছিল মহিলারা কাজ করলেও ক্ষমতা থাকবে পুরুষেরই হাতে। উচ্চপদে আসীন হতেন কেবলমাত্র পুরুষেরাই। নারী শ্রমিকদের করতে হতো পাতা সংগ্রহের মতো কঠিন পরিশ্রমের কাজ। এতদিনের এই ব্যবস্থা বদলে এবার প্রথম এক নারীর কাঁধে চা বাগানের প্রধানের দায়িত্ব অর্পণ করা হয়েছে। ৪৩ বছরের মঞ্জু বড়ুয়া এখন আসামের তিনসুকিয়া জেলার হিলিকা চা বাগানের শ্রমিক কর্মচারীদের “বড় ম্যাডাম”। এতদিন আসাম বা উত্তরবঙ্গের চা বাগানগুলোতে ম্যানেজারদের সম্বোধন করা হয় ‘বড় সাহেব’বলে। প্রথমবার এই পদে এক মহিলা। কর্মচারীরাও খানিক হোঁচট খাচ্ছেন ম্যাডাম বলতে গিয়ে। গোটা বাগানের ৬৩৩ হেক্টর এলাকার আনাচে কানাচে ঘুরতে হয় মিসেস বড়ুয়াকে, কখনও সাইকেলে, কখনও জিপে, কখনও বা মোটরসাইকেলে। সবগুলির চালকের আসনেই স্বচ্ছন্দ তিনি। একাই যান বাগানে। অনেকের কাছেই এখন আইকন ছকভাঙা মঞ্জু বড়ুয়া। তাঁর কথায় “চেয়ারম্যান যেদিন ডেকে ম্যানেজারের পদে প্রোমোশনের কথা জানিয়েছিলেন, সেদিন আনন্দে এতটাই আত্মহারা হয়ে পড়েছিলাম যে পদোন্নতির জন্য চেয়ারম্যানকে ‘থ্যাঙ্ক ইউ’ বলার বদলে ‘কনগ্র্যাচুলেট’ করে ফেলেছিলাম”।