Date : 2020-10-22

শহরে আসতে চলেছে “মোবাইল টয়লেট”

কলকাতা: কলকাতা শহরের পরিবেশকে সুস্থ ও সুন্দর করে তুলতে সৌন্দর্যায়নের পরিকল্পনা অনেকদিন আগেই নিয়েছে রাজ্য সরকার। গাছ লাগিয়ে, রাস্তাঘাট পরিচ্ছন্ন রেখে “ক্লিন সিটি, গ্রিন সিটি”-র রূপায়নের পথে অনেকগুলো প্রকল্প গ্রহন করেছে কলকাতা পুরসভা। রাজনৈতিক দলের মিটিং-মিছিল-সমাবেশ হোক বা দুর্গাপুজো থেকে মকর সংক্রান্তির গঙ্গাস্নান, কলকাতা শহরে নানা উৎসব-পার্বণে কারণে অকারণে বহু মানুষের সমাগম হয় বছরের প্রায় সব সময়। শহরকে পরিচ্ছন্ন রাখতে তাই বিভিন্ন জায়গায় শৌচালয়ের ব্যবস্থা করেছে কলকাতা পুরসভা। তবে সব জায়গায় শৌচাগার নির্মান সম্ভব নয়। তাই বড়বাজার, হাতিবাগান মার্কেট, নিউ মার্কেটের মতো ঘিঞ্জি বাজার গুলো যেখানে প্রতিদিন অসংখ্য লোকজনের যাতায়াত তাকে পরিচ্ছন্ন রাখতে এবার কলকাতা পুরসভা চলমান শৌচাগার চালু করার উদ্যোগ নিয়েছে। কলকাতা পুরসভা আপাতত ৮ থেকে ১০ টি মোবাইল টয়লেট গাড়ি কিনতে চলেছে। কলকাতার বড় বড় বাজার গুলিতে এই চলমান শৌচাগার গাড়ি থাকবে, আগামী দিনে এইরকম মোবাইল টয়লেট গাড়ি আরো কেনা হবে বলে জানিয়েছেন মেয়র পারিষদ পরিবেশ স্বপন সমাদ্দার। মেয়রের বক্তব্য অনুযায়ী, কলকাতা যেহেতু পুরনো শহর তাই সর্বত্র শৌচালয় তৈরি করা যাচ্ছে না। এর ফলে সমস্যায় পড়তে হয় মহিলাদের। তাদের কথা ভেবেই এই চলমান শৌচাগারের ব্যবস্থা করেছে কলকাতা পুরসভা। বড়বাজার, হাতিবাগান মার্কেট ও নিউ মার্কেটের বাইরে মিলবে চলমান শৌচাগার। শৌচাগারে থাকবে মহিলাদের জিনিসপত্র রাখার ব্যবস্থা। গাড়ি গুলির আনুমানিক দাম পড়তে পারে চার লাখ টাকা তাই আগামী অর্থবর্ষের মধ্যে চলমান শৌচাগারের ই-টেন্ডারিং সেরে ফেলা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। এই শৌচাগারে থাকবে স্নানের ব্যবস্থাও। অন্যান্য সুলভ শৌচালয়ের মত এগুলোতেও পয়সা দিয়ে ব্যবহার করতে হবে জনসাধারণকে। আগামী পুজোর মধ্যেই শহরে এই ধরনের শৌচাগারের পরিসেবা মানুষ পূর্ণমাত্রায় পেয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন মেয়র পারিষদ স্বপন সমাদ্দার।