Date : 2020-10-27

সব চুল উঠে যাচ্ছে? এখনই বন্ধ করুন এই দুটো কাজ

ওয়েব ডেস্কঃ রোজকার জীবন থেকে মাত্র দুটি কাজ বাদ দিলেই কেল্লাফতে। চুল পড়ার সমস্যা আর নয় মাথা ব্যাথার কারণ। সেই পথ বাতলে দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। এখন চুল পড়ার সমস্যা সবচেয়ে বেশি মাথা ব্যাথার কারণ। আর সেটা যদি ক্রমশ ভয়াবহ আকার ধারণ করে তাহলে তো একটু বিশেষ যত্নেরও দরকার পড়ে। বর্তমানে ঋতুর সঙ্গে তাল মিলিয়ে চুল পড়ার এক নিবিড় সম্পর্ক তৈরি হয়েছে। যেমন অনেকে বলেন, বর্ষাকাল নাকি চুলের জন্য সবচেয়ে ক্ষতিকারক সময়। আবার কেউ কেউ মনে করেন গরমকালে মাথায় ঘাম জমে চুল উঠে যায়। তবে এদিক থেকে শীতকালের বেশে সুনাম রয়েছে বলা যেতেই পারে। অনেক সময় চুল পড়া থেকে রেহাই পেতে নানা ঘরোয়া টোটকার কথা শোনা যায়, আবার কেউ পছন্দ করে আয়ুর্বেদিক উপায়। কিন্তু আদতে কোনটা ঠিক? চুল পড়ার সমস্যা থাকলে কি করা উচিৎ?
এত বিতর্কে না গিয়ে রোজকার জীবন থেকে যদি আপনি দু’টো কাজ বাদ দিয়ে দেন তাহলেই যে কেল্লাফতে। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, রোজ শ্যাম্পু করা বন্ধ করলে আর রাসায়নিক প্রোডাক্ট ব্যবহার বন্ধ করলেই বাগে আসতে পারে এই সমস্যা। কিন্তু এক্ষেত্রেও রয়েছে সমস্যা। যারা রোজ বাইরে বেরোন তাদের জন্য নিয়মিত চুলে শ্যাম্পু অত্যন্ত জরুরি। বাইরের ধুলোবালি, পলিউশন, ঘামের জেরে চুল এতটাই রুক্ষ হয়ে ওঠে যে তাতে রোজ শ্যাম্পু করার দরকার হয়। কিন্তু প্রতিদিন শ্যাম্পু করলে চুলের গোড়া নরম হয়ে যায়। তাই যারা রোজ বেরোন তাদের জন্য এক দিন বাদ দিয়ে শ্যাম্পু যথেষ্ট। অন্যদিকে, চুলের পুষ্টি হিসাবে বাজারে হরেক রকম জিনিস পাওয়া যায়। হেয়ার সিরাম থেকে শুরু করে কালার এমনকি হেয়ার স্পা কিটও। আর এই সব প্রোডাক্টেই কম-বেশি রাসায়নিক ব্যবহার হয়ে থাকে। তাই বিশেষজ্ঞদের মতে এই পণ্যগুলি ব্যবহারে হ্রাস টানলে চুল পড়া কমবে।