Date : 2020-10-23

গ্যাজেটই জীবনের জিয়নকাঠি, পেনসিল ধরতে ভুলছে শৈশব…

ওয়েব ডেস্ক: রোজ বাড়ছে অফিসের চাপ। সন্তানকে পর্যাপ্ত সময় দেওয়ার মতো সময়ও হাতে নেই,তাই হাতে তুলে দিচ্ছেন দামী গ্যাজেট। নিজের হাতেই সন্তানের কতটা ক্ষতি করছেন জানেন কি?
আপনি-আমি স্মার্ট ফোনের ব্যবহারে ততটা দক্ষ না হলেও একুশ শতকের খুদেরা দ্রুত রপ্ত করে ফেলতে পারে প্রযুক্তির সমস্ত খুঁটিনাটি। ট্রামে-বাসে-ট্রেনে এমনকি পথচলতি রাস্তাতেও জেন ওয়াইয়ের হাতে ফোন, কানে হেডফোন। কিন্তু প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মেলাতে গিয়ে আপনার সন্তানের শারীরিক গঠনেও দেখা দিচ্ছে নানা ত্রুটি। সামান্য পেনসিল ধরার ক্ষমতাও হারিয়ে ফেলছে নতুন প্রজন্মের খুদেরা। পৃথিবীর নানা প্রান্তের গবেষণায় দেখা গিয়েছে, স্কুল-কলেজ পড়ুয়াদের মধ্যে মোবাইলের নেশা সাংঘাতিক। শুধু স্মার্টফোনই নয়, ট্যাব কিংবা আইপ্যাড সবেতেই স্বাচ্ছন্দ্য আজকের তরুণ প্রজন্ম। কিন্তু সারাক্ষণ স্মার্ট ফোনের স্ক্রলিংই ডেকে আনছে সর্বনাশ। চিকিৎসকেরা বলছেন, একটানা ফোনে স্ক্রলিং করার ফলে আঙুলের বিভিন্ন পেশীর স্বাভাবিক বৃদ্ধি বাধা পায়। ফলে আঙুলের পেশীর গঠন সঠিক হয় না। এর ফলে পেনসিল ধরতে গেলে হাতে জোর পাওয়া যায়না। এমনকি অনেক সময়েই ঠিক ভাবে হাতের আঙ্গুল গুলি কাজও করে না। সঠিকভাবে পেনসিল ধরার জন্য হাতের আঙুলের পেশীগুলি সচল থাকা দরকার। সঙ্গে দরকার পেশীর সঠিক জোর। কিন্তু অতিরিক্ত টাচ ফোন ঘাঁটার ফলে দুর্বল হয়ে যাচ্ছে আঙুলের পেশী। আর সঠিক ভাবে পেনসিল ধরতে না পারায় খারাপ হচ্ছে পড়ুয়াদের হাতের লেখা। তাই সময় থাকতে সাবধান হন। স্মার্টফোন থেকে দূরে রাখুন আপনার সন্তানকে।