Date : 2020-10-23

ভ্রু- পল্লবের ডাকে ব্রিগেডমুখী আদিবাসী মিছিল

ওয়েব ডেস্ক: “ভ্রু- পল্লবে ডাক দিলে, দেখা হবে ব্রিগেডের মাঠে”। গোটা ঝাড়গ্রাম জুড়ে আদিবাসীদের কন্ঠে এখন এই স্লোগান। দেশজুরে ঘটে চলা অসহিষ্ণুতার বাতাবরণকে রুখতে জাতীয় স্তরের বিজেপি বিরোধী শক্তিগুলিকে একমঞ্চে মিলিত হওয়ার ডাক দিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রস্তাবিত সভা মঞ্চে এসে উপস্থিত হবেন দেবগৌড়া, কুমারস্বামী, অরবিন্দ কেজরী ওয়াল, চন্দ্রবাবু নাইডু, অখিলেশ যাদব, তেজস্বী, অজিত সিং, শরদ পাওয়ার, ফারুক আবদুল্লা, ওমর আবদুল্লা, শত্রুঘ্ন সিনহা, যশবন্ত সিনহা, অরুন সৌরী, বাবুলাল মারান্ডি সহ বিশিষ্ট রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরা। এছাড়াও কংগ্রেসের তরফ থেকে প্রতিনিধিত্ব করবেন মল্লিকার্জুন খার্গে, এবং সতীশ মিশ্র আসছেন বিএসপি নেত্রী মায়াবতীর তরফে প্রতিনিধি প্রতিনিধিত্ব করতে। ১৯ শে ব্রিগেডের মাঠে এই বিপুল জনসমুদ্রের সঙ্গে পা-এ পা মিলিয়েছে ঝাড়গ্রামের আদিবাসীরা। তাদের বজ্রমুষ্ঠি আকাশের দিকে তাক করে ডাক দিচ্ছে কেন্দ্রে নতুন সরকার আনার। বুধবার পশ্চিম বর্ধমানের কাঁকসার রঘুনাথপুর গ্রাম থেকে শুরু হয়েছে এই পদযাত্রার। ১৬৫ কিলোমিটার পথ হেঁটে আসবেন আদিবাসী লোকশিল্পীরা। আদিবাসীদের এই পদযাত্রার নেতৃত্বে থাকছেন দলের রাজ্য আদিবাসী সেলের চেয়ারম্যান দেবু টুডু। তিনি আবার পূর্ব বর্ধমানের বর্তমান সহ- সভাধিপতি পূর্বতন সভাধিপতি। আদিবাসীদের এই পদযাত্রা পশ্চিম বর্ধমান, হুগলী, হাওড়া হয়ে এসে মূল জনস্রোতের সঙ্গে মিলিত হবে। আদিবাসীদের এই পদযাত্রায় টানা দু দিন ধরে শতাধিক মানুষ হেঁটে চলেছেন। যেসব রাস্তা দিয়ে তাদের মিছিল আসছে সেখানে অঞ্চলের মানুষ তাদের না নাভাবে অভ্যর্থনা জানাচ্ছেন। যেতে যেতে তারা বলে যাচ্ছেন আদিবাসী উন্নয়নে রাজ্য সরকারের সদিচ্ছার খতিয়ান। পথে সম্বর্ধনায় দেওয়া হচ্ছে দলের পক্ষ থেকে। পদযাত্রায় রয়েছে ধামস মাদলের বোলে নৃত্যের আয়োজন। ব্রিগেডের ময়দানে কেন্দ্রে সরকারের বদল আনতে এখন গমগমে ঝুমুরের তালে মুখোরিত ব্রিগেডের সভা প্রাঙ্গন।