Date : 2020-10-30

মোদী সরকারের আমলে বেকারত্ব বেড়েছে ৬.১ শতাংশ

নয়াদিল্লি: লোকসভা ভোটের মুখে বড়সড় ধাক্কা খেল মোদীসরকার। দ্য ন্যাশনাল স্যাম্পল সার্ভে-র সমীক্ষায় যে তথ্য উঠে এসেছে তা রীতিমতো চমকে দেওয়ার মতো। বিগত ৪৫ বছরের রেকর্ড ভেঙেছে মোদী সরকারের শাসনকালে। ২০১৭-১৮ আর্থিক বছরে ভারতের বেকারত্ব বেড়েছে ৬.১ শতাংশ৷ দ্য ন্যাশনাল স্যাম্পল সার্ভে-র সমীক্ষায় এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে। নোটবন্দির পর উল্লেখযোগ্য হারে ভারতে বেকারত্ব বেড়েছে ৷ গত মাসে কর্মসংস্থান নিয়ে কোনও তথ্য প্রকাশ করতে পারেনি সরকার৷ যার জেরে পদ ছাড়েন ন্যাশনাল স্ট্যাটিস্টিক্যাল কমিশনের কার্যনির্বাহী চেয়্যারপার্সন পিসি মোহনন এবং ইন্ডিয়ান স্ট্যাস্টিক্যাল সার্ভিসের প্রাক্তন সদস্য জেভি মীনাক্ষী। তাঁদের অভিযোগ,স্বাধীনভাবে কাজের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে কেন্দ্রের হস্তক্ষেপে। এর পাশাপাশি মোহনন তাঁর ইস্তফার কারণও স্পষ্ট করে বলেন, কর্মসংস্থানের রিপোর্ট প্রকাশ করতে দেওয়া হয়নি। দ্বিতীয়ত, ২০১৭-১৮ বর্ষে ন্যাশনাল স্যাম্পল সার্ভের অফিসের বেকার এবং কর্মসংস্থানের একটি রিপোর্ট ডিসেম্বরে অনুমোদন করে এনএসসি। কিন্তু সে রিপোর্টও এখনও পর্যন্ত প্রকাশ করা হয়নি। মোদী সরকার নোটবন্দীর কথা ঘোষণা করার পর এই প্রথম কোনও সরকারি সংস্থা দেশের কর্মসংস্থান নিয়ে সমীক্ষা চালাল। দ্য ন্যাশনাল স্যাম্পল সার্ভে-র তথ্য অনুযায়ী ১৯৭২-৭৩ সালের পর এই হারে বেকারত্ব বাড়েনি৷ ইউপিএ সরকারের শেষ দফায় ২০১১-১২ সালে বেকারত্বের হার ছিল ২.২ শতাংশ। কিন্তু সমীক্ষায় প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী বিগত ৪৫ বছরের সমস্ত রেকর্ড ভেঙেছে বিজেপি সরকারের আমলে। ভোটের আগে এই রিপোর্ট নিঃসন্দেহে সরকারের চাপ আরও বাড়াল এমনটাই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।