Date : 2020-10-24

সিবিআই-কলকাতা পুলিশ সংঘাত গড়াল সংসদে

নয়া দিল্লি: সারদাকাণ্ডে কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের বাড়িতে সিবিআই আধিকারিকদের অভিযানকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত রাজ্য-রাজনীতি। আর এর আঁচ যে সোমবার সংসদে পড়বে তা রবিবারই কিছুটা হলেও আন্দাজ করা গিয়েছিল। এদিন ধর্নায় বসার পরই পাশে থাকার আশ্বাস দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফোন করেন রাহুল, অখিলেশ, কেজরিওয়াল সহ একাধিক সর্বভারতীয় নেতা। অনুমান মতোই এদিন সিবিআই নিয়ে আলোচনার দাবিতে উত্তপ্ত হয় সংসদ। যার জেরে মুলতুবি হয়ে যায় সংসদের দুই কক্ষই। এদিন রাজ্যসভায় আলোচনা চেয়ে তৃণমূলের তরফে নোটিশ দেওয়া হয়। অন্যদিকে আম আদমি পার্টির তরফে আপ সাংসদ সঞ্জয় সিং আলোচনার জন্য নোটিশ দেন। লোকসভাতেও এই একই নোটিশ দেওয়া হয় । কিন্তু নোটিশ গৃহীত না হওয়ার জেরে বিরোধীরা বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। প্রসঙ্গত, রবিবার থেকেই তৃণমূলের পক্ষ থেকে বিরোধী নেতাদের সঙ্গে কথাবার্তা শুরু করেন ডেরেক ও’ব্রায়েন ও সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়। সকাল সাড়ে দশটা থেকে এগারোটার মধ্যে এদিন সমস্ত বিরোধী দলগুলির মধ্যে একটি আলোচনা হয় । সেখানেই স্থির হয় অধিবেশন শুরু হলেই তারা একযোগে সরকারকে আক্রমণ করবে। সংসদে সিবিআই নিয়ে আলোচনার জন্য তৃণমূলের নেতৃত্ব ১৫টি দল দাবি জানায়। শেষপর্যন্ত পরিস্থিতি এতটাই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে লোকসভা ও রাজ্যসভার যে তা মুলতুবি করে দিতে হয়।