Date : 2020-10-23

পুলওয়ামার প্রত্যাঘাত, বায়ুসেনার ভূয়সী প্রশংসা মমতার

কলকাতা: পুলওয়ামার আত্মঘাতী জঙ্গি হামলার পর প্রতিশোধ স্পৃহায় জ্বলছিল গোটা দেশ। সুযোগের অপেক্ষায় ছিল ভারতীয় সেনারাও। সেই মতো হামলার ১২ দিনের মধ্যে সীমান্তরেখা পার করে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে প্রত্যাঘাত হানলো ভারতীয় বায়ুসেনা। মঙ্গলবার ভোর রাতে নিয়ন্ত্রণরেখা পার করে ১২টি মিরাজ ২০০০ বিমান ২১ মিনিটের নিখুঁত অপরেশন চালায় জইশ জঙ্গি ঘাঁটিতে। পাক অধিকৃত কাশ্মীরের নিয়ন্ত্রণরেখা থেকে ৫০ কিলোমিটার ভেতরে খাইবার পাখতুনওয়া এলাকায় এই হামলা চালানো হয়। জঙ্গি ঘাঁটি লক্ষ করে ১ হাজার কেজির বোমা বর্ষণ করে বায়ুসেনা। কয়েক মিনিটের মধ্যে ধ্বংস হয় একাধিক জঙ্গি ঘাঁটি। সরকারি হিসাবে এখনো পর্যন্ত ৩০০ জঙ্গি নিকেশ করা হয়েছে। বায়ুসেনার এয়াস্টাইককে কুর্ণিশ জানিয়ে স্যালুট করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

প্রসঙ্গত, দেশের এই পরিস্থিতিতে সমস্ত রাজনৈতিক দলের সহমত ব্যক্ত করা উচিত এমটাই মনে করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন ট্যুইট করে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সাফল্যকে অভিবাদন জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। ভারতীয় বায়ুসেনাকে তারিফ করে তিনি বলেন, “আইএএফ মানে ইন্ডিয়ান অ্যামেজিং ফাইটার্স। জয় হিন্দ।” রাজনীতি বা দলমত নির্বিশেষে দেশের নিরাপত্তার স্বার্থে সবাই এক, এই বার্তা আন্তর্জাতিক মহলে যাওয়া জরুরি। সম্ভবত সেই কারণেই এ দিন রাহুল গান্ধী, এনসিপি নেতা শরদ পওয়ার থেকে শুরু করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সকলেই ভারতীয় বায়ুসেনার প্রশংসা করেছেন। এদিন ভারতীয় বায়ুসেনা গুড়িয়ে দিয়েছে জইশ, লস্কর,হিজিবুল মুজাহিদিন যৌথ জঙ্গি ঘাঁটি। ধ্বংস করা হয়েছে জইশের আলফা থ্রি কন্ট্রোলরুম।