Date : 2020-10-31

কৃষ্ণগঞ্জের পর দাদপুরে ফের খুন তৃণমূল নেতা

হুগলি: নদিয়ার কৃষ্ণগঞ্জের তৃণমূল বিধায়ক খুনের জট না কাটতেই হুগলির দাদপুর থেকে উদ্ধার হল কাঁথির মরিশদার তৃণমূল নেতা ঋতেশ রায়ের দেহ। ৭ ফেব্রুয়ারি বাড়ি থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর আর খোঁজ মেলেনি তার। ৪ দিন পর গলা কাটা অবস্থায় দেহ উদ্ধার হুগলির দাদপুর থেকে। খুনের ঘটনায় তৃণমূলের তরফে অভিযোগ করা হয়েছে বিজেপির স্থানীয় নেতৃত্ব তাকে অপহরণ করে খুন করেছে। অভিযোগ অস্বীকার করে বিজেপির তরফে জানানো হয়েছে ঋতেশ রায়কে তারা চেনেন না। তৃণমূল সূত্রে খবর, ২৯ জানুয়ারি অমিত শাহের সভার পর তৃণমূলের যে পার্টি অফিসে বিজেপির হামলা চালানোর অভিযোগ ওঠে। সেই অফিসেই ঘটনার সময় উপস্থিত ছিলেন ঋতেশ রায়। পরিবার সূত্রে দাবি, নিখোঁজ হওয়ার দিন বন্ধু শৌভিক চক্রবর্তী তাঁকে ফোন করেছিলেন। ফোন পাওয়ার পরেই মালদহ যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে পরেন ঋতেশ। এরপর টানা ৩ দিন নিখোঁজ থাকার পর তার দেহ উদ্ধার হয়। উদ্বিগ্ন পরিবারের লোকজন তার ছবি বিভিন্ন থানায় পাঠানোর পর সোমবার হুগলির দাদপুর থেকে তার পটাগলা মৃত দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। মৃতদেহ দেখে সনাক্ত করেন তার ছেলে। তিনি এলাকায় শুভেন্দু অধিকারীর ঘনিষ্ঠ ও সক্রিয় তৃণমূল নেতা হিসাবে পরিচিত ছিলেন। খুনের ঘটনায় পরিবারের তরফে মরিশদা থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তবে এখনো পর্যন্ত একজনও গ্রেফতার হয়নি।