Date : 2020-10-31

কোর কমিটির বৈঠকে কড়া বার্তা মমতার

কলকাতা: দলে ভাঙন রুখতে নজরুল মঞ্চ থেকে কোর কমিটির মিটিঁংয়ে দলীয় কর্মীদের একসঙ্গে থাকার বার্তা দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি বিজেপি, আরএসএস-কে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেন তিনি। গভীর রাতে বিজেপির মিছিলের উদ্দেশ্য জানতে চেয়ে দলের নেতাদের কাছে প্রশ্ন রাখেন তিনি। দলের কোর কমিটির বৈঠকে তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, টাকা দিয়ে দলের নেতা কর্মীদের কেনার চেষ্টা করছে বিজেপি। নাম না করে মুকুল রায়কে কাঠগোড়ায় তোলেন তিনি। তাঁর অভিযোগ, দল ভাঙানোর জন্য ভিন রাজ্য থেকে টাকা আসছে। দলীয় কর্মীদের অভয় দিয়ে তিনি বলেন, ৩৪ বছরের বাম শাসনকে তৃণমূল উচ্ছেদ করেছে। বিজেপিকে তারা অনায়াসেই জব্দ করতে পারবে। আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যে ৪২এ ৪২ টা আসনই পাবে তৃণমূল, এমনই দাবি করেন তিনি। তাছাড়া ইভিএম হ্যাক রুখতে দলীয় কর্মীদের ভিভিপ্যাট নিয়ে বিশেষ প্রশিক্ষণের কথা বলেন দলনেত্রী। এদিন বিশ্ব হিন্দু পরিষদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে তিনি বলেন, “বিশ্ব হিন্দু পরিষদ একটি উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তি, এদের দেখতে পেলে পুলিশে খবর দিন”।

পশ্চিমবঙ্গে বাম – কংগ্রেসের জোটকেও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “বাম-কংগ্রেস-বিজেপি একজোট হচ্ছে। চোর – ডাকাত সব একজোট হচ্ছে। আমাদেরও একজোট হতে হবে”। কোর কমিটির বৈঠক থেকে প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, “পুলওয়ামা হামলার খবর আগে থেকেই ছিল মোদীর কাছে। তার পরেও কেন বাহিনীকে সড়কপথে পাঠানো হয়েছিল? কেন উপযুক্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেনি কেন্দ্রীয় সরকার। শহিদ জওয়ানদের লাশ নিয়ে রাজনীতি করছেন মোদী”। রাজ্যে সাম্প্রদায়িক শক্তির উত্থান রোধ করতে ডাক দেন তিনি। বিজেপি ও আরএসএস-এর ছড়ানো বিদ্বেষের প্রতি তিনি ধিক্কার জানান। এর ফলে রাজ্যে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে বলে তিনি অভিযোগ তোলেন এবং দলের নেতা কর্মীদের তিনি সতর্ক হতে বলেন। পাশাপাশি হিংসা থেকে তিনি সকলকে সংযত হতে নির্দেশ দেন।