Date : 2020-10-22

মমতার আমলে রাজ্যের সবচেয়ে বেশি উন্নতি হয়েছে : পার্থ

ঝাড়গ্রাম: “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখ্যমন্ত্রীত্বকালে রাজ্যে সবচেয়ে বেশি উন্নতি হয়েছে”, শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় লালগড়ের রামগড়ে কলেজ উদ্বোধনে এসে এ কথাই বললেন। অর্থনৈতিক দিক থেকে পিছিয়ে থাকা মানুষদের কাছে শিক্ষার আলো পৌঁছে দিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই প্রয়াস করে চলেছেন নিরন্তর। শিক্ষামন্ত্রীর কথায়, ঝাড়গ্রামে মেডিকেল কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় হয়েছে। এখানকার প্রতিটি পরিবার ন্যূনতম চার-পাঁচটি প্রকল্পের সুবিধা পেয়ে থাকেন। প্রকল্পগুলির সুবিধা আরও সঠিকভাবে ব্যাপক হারে বন্টন করতে হবে। তবেই জঙ্গলমহলের আরোও উন্নতি সম্ভব। ইতিমধ্যে অলচিকি ভাষায় ২৮৪জন শিক্ষক নিয়োগ করা হয়েছে। এছাড়া শিক্ষাক্ষেত্রে শিক্ষকদের আরোও প্রশিক্ষিত করে তোলার পরামর্শ দেন তিনি। তার জন্য জেলার বিভিন্ন কলেজে বিশেষ প্রশিক্ষণ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এদিন কলেজ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসে পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, আগের তুলনায় লালগড়ে রাস্তাঘাট ও পানীয়জলের উন্নতি হয়েছে। কৃষকরা প্রয়োজন মতো চাষের জল পাচ্ছেন। এদিন তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আধুনিক বাংলার রূপকার বলে তুলনা করেন। তবে পার্থবাবুর অভিযোগ, এতো কিছু করার পরেও বাইরে থেকে লোক এসে সমস্যা তৈরি করছেন। সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই সমস্যার সমাধান করতে হবে বলে জানিয়েছেন। এদিন পিটিটিআই কলেজ উদ্বোধনে উপস্থিত ছিলেন ঝাড় গ্রামের সাংসদ উমা সোরেন বিধায়ক সুকুমার হাঁসদা চূড়ামণি মাহাতো ও দুলাল মুর্মু।