Date : 2020-10-26

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শেষ আটের লেগে পিএসজি

ওয়েব ডেস্ক: ম্যান ইউকে ধরাসায়ী করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর লেগে প্যারিস সেন্ট জারমেন এফ সি। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ২-০ গোলে ইতিহাস গড়ল টমাস টুথেলের দল। প্রথমার্ধে যদিও ইউনাইটেডের কাছে বেসামাল হয়ে যায় প্যারিসের এই ক্লাবটি। এরপরেই কিম্পেম্বের গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর জয়ের পথ সুগম করেন এমবাপে। গ্যালারিতে বসে তখন ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের কিংবদন্তি অ্যালেক্স ফার্গুসন। গুনার সোলজারের কোচিং-এ ইউনাইটেডের এই প্রথম হার দেখছিলেন তিনি। টানা ১১ টি ম্যাচের ১০টিতে অপরাজিত থাকার পর ইউরোপ সেরাদের হঠাৎই ছন্দপতন। আবার সেই অর্থে দেখলে শেষ ষোলো থেকে দুবার ছিটকে গেছিল পিএসজি। এবার তাদের সামনে শেষ আটে পৌঁছনোর ডাক। এদিন ম্যাচের প্রথমার্ধ ছিল গোল শূণ্য। কোন দলই দেখাতে পারেনি তাদের ক্যারিশমা। বরং গুনে গুনে ১৩ বার ফাউলের বাঁশি বাজিয়েছেন রেফারি। দুই দল মিলিয়ে মোট ৫ জন হলুদ কার্ড দেখেন। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে প্রথম সুযোগটি পায় পিএসজি। এমবাপের হেড শটে ঝাঁপিয়ে কর্নার করে দেন দাভিদ হিয়া। এরপর ৫৩ মিনিটের মাথায় ডি মারিয়ার কর্নারের সদব্যবহার করে কিম্পেম্বে পিএসজি-কে এগিয়ে নিয়ে যান। মাত্র সাত মিনিটের ব্যবধানে এরপরের গোলটি ছিল সবচেয়ে আত্ম বিশ্বাসী। দি মারিয়ার ক্রস ডি-বক্সের বাইরে পেয়ে প্লেসিং শটে বল ম্যান ইউ-র জালে জড়ান এমবাপে। এই গোলের পরেই ম্যাচে ফেরার আসা কার্যত শেষ হয়ে যায় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। ৮৯ মিনিটের মাথায় হলুদ কার্ড সংগ্রহ করে মাঠ ছাড়েন পোগবা। আলভেজকে ফাউল করে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ম্যান ইউ -এর এই তারকা। প্রসঙ্গত, ৬ মার্চ ফিরতি লেগে পিএসজির মাঠে পল পগবাকে ছাড়াই খেলতে হবে ইউনাইটেডকে।