Date : 2020-12-01

শ্রীনগরে নামানো হল অতিরিক্ত ১০০ কোম্পানি আধাসেনা

শ্রীনগর:পুলওয়ামায় হামলার ঘটনার পর থেকেই এখনও থমথমে জম্মু-কাশ্মীর। ৪৪ জন জওয়ানের মৃত্যুতে ক্ষোভে ফুঁসছে দেশ। ঘটনার পর পরই উপত্যকা জুড়ে জারি করা হয় কার্ফু৷ কার্ফুকে উপেক্ষা করেও গর্জে ওঠে কাশ্মীর। ঘটনার পর থেকেই সীমান্তজুড়ে আঁটোসাঁটো করা হয়েছে নিরাপত্তা ব্যবস্থা। পুলওয়ামা হামলার পর কাশ্মীরজুড়ে শুরু হয় জোর তল্লাশি। কাশ্মীরে এই মূহুর্তে নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছে রাজ্য পুলিস ও কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনী। শুক্রবার রাতে জেকেএলএফ নেতা ইয়াসিন মালিককে আটক করা হয়। এরপরই কাশ্মীরে নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে আরও জোরালো করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

অতিরিক্ত ১০০ কোম্পানি আধাসেনা জরুরি ভিত্তিতে শ্রীনগরে পাঠানো হল। পুলওয়ামা হামলায় জইশ যোগ স্পষ্ট হয়ে যাওয়ায় ক্রমশই বাড়ছে রাজনৈতিক উত্তাপ। জেকেএলএফ নেতা ইয়াসিন মালিকের পাশাপাশি এদিন একাধিক জামাত-ই-ইসলামি নেতাকেও গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ত্রাল, অনন্তনাগ সহ রাজ্যের বিভিন্ন জায়গা থেকে আবদুল হামিদ ফায়াজ সহ বিভিন্ন নেতাদের গ্রেফতার করে পুলিশ। এদিকে বিগত বেশ কয়েকদিনে কাশ্মীরের ১৮ জন বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতার সরকারি নিরাপত্তা তুলে নেওয়ার পাশাপাশি রাজ্যে ১৫৫ জন নেতার নিরাপত্তায় থাকা কর্মীদেরও সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।