Date : 2020-10-24

পুলওয়ামা কান্ড: কাশ্মীরে ভ্রমন-ভয় কাটাতে শহরে এল কাশ্মীরি ভ্রমণ সংস্থা

কলকাতা: ভ্রমণ পিপাসু মানুষ জীবনে একবার ভূস্বর্গ কাশ্মীর ঘুরতে যাননি এমনটা ভাবাই যায় না। কিন্তু গোলাপে কাঁটা তো থাকবেই। কাশ্মীরের পর্যটন শিল্পে সবচেয়ে বড় বাধা জঙ্গি হামলা, সন্ত্রাসবাদ। শৈলরানীর রাজপথ বারবার রক্তাক্ত হয়েছে সন্ত্রাসবাদের ছোবলে। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর সবচেয়ে বড় হামলা পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলা। কাশ্মীর পর্যটনের উপর নির্ভর করে যারা বেঁচে থাকে তাদের নিরন্ন করে জঙ্গি হামলা। পুলওয়ামা ঘটনার আতঙ্কে ভূস্বর্গে পা রাখছে না পর্যটকরা। তাই পর্যটকদের আশ্বাস দিতে শহরে এল কাশ্মীরি ভ্রমণ সংস্থার কর্মীরা।

শীতে শ্বেত তুষার, গ্রীষ্মে হিমালয়ের বুকে জেগে ওঠা ‘হরিয়ালি’ ভ্রমরের মতো পর্যটকদের আকর্ষণ করে। কিন্তু শীত গ্রীষ্মের মাঝে শিকারায় গা এলিয়ে ছুটি কাটাতে যারা কাশ্মীরকে ইতিমধ্যে নিজের গন্তব্য করেছিলেন তারাই এখন দলে দলে টিকিট বাতিল করতে ব্যস্ত। এর ফলেই রাতের ঘুম উড়েছে কাশ্মীর পর্যটন ব্যবসায়ীদের। শহরের পর্যটন মেলায় নির্ভয়ে কাশ্মীরে যাওয়ার অনুরোধ করতে উপস্থিত হয়েছেন তারা। পাক মদত পুষ্ট জঙ্গিরা যতবারই আঘাত হেনেছে কাশ্মীরে ততবারই যোগ্য জবাব দিয়েছে ভারতীয় সেনা। নিকেশ হয়েছে একাধিক জঙ্গি। লাদাখ, জম্মুর একাধিক পর্যটন সংস্থার অফিস রয়েছে কলকাতায়। পুলওয়ামা ঘটনার পর তাদের মাথায় হাত পড়েছে।

পর্যটকদের নিরাপত্তার আশ্বাস দিয়ে কাশ্মীর ভ্রমণের জন্য আবেদন জানিয়েও লাভ হচ্ছে না। সংশয় দুর হচ্ছে না পর্যটকদের মন থেকে। কলকাতার সায়েন্স সিটিতে পর্যটন মেলায় পা রেখেছে একাধিক কাশ্মীরি ভ্রমন সংস্থা। তাদের একটাই দাবি, পর্যটকরা যেন মুখ না ফিরিয়ে নেন ভূস্বর্গ থেকে। এই মর্মে তারা কিছু আকর্ষনীয় ভ্রমন প্যাকেজ তুলে ধরেছে পর্যটকদের কাছে।

ভ্রমণ প্যকেজে আছে আকর্ষনীয় ছাড়। তবুও পর্যটক টানতে কার্যত হিমশিম খাচ্ছেন সংস্থার কর্ণধাররা। ট্রাভেল অ্যান্ড টুরিজিম ফেয়ারে কাশ্মীর ছাড়াও উপস্থিত ছিল পঞ্জাব, হরিয়ানা, হিমাচল প্রদেশ ও গুজরাটের পর্যটক সংস্থার একাধিক স্টল। পর্যটন মেলায় কাশ্মীর ছাড়া বাকি ট্যুরিজিম স্টলগুলিতে ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো।