Date : 2021-05-10

নাক থেকে তৈরি হবে অ্যান্টিবায়োটিক

ওয়েব ডেস্ক: একটু সর্দি কাশি হলেই অথবা পেট খারাপ করলেই ডাক্তারের প্রেসকিপশনে আসে এক গাদা অ্যান্টিবায়োটিকের তালিকা। আবার যাদের ঘন ঘন ডাক্তারের কাছে যাওয়ার অভ্যাস নেই তারাও একটু কিছু হলেই বাজার চলতি অ্যান্টিবায়োটিক মুড়িমুড়কির মতো খেয়ে নেন। ক্যান্সারের মতো মারণ ব্যাধি দূর করতে কেমোর মতো হাই পাওয়ার অ্যন্টিবায়োটিকের মৃত্যু মুখ থেকে ফিরিয়ে আনে। তাই অ্যান্টিবায়োটিকের সম্পর্কে সব সময়ই নানা অনুসন্ধান চালিয়ে যান চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা। অনুসন্ধান চালাতে গিয়ে এবার মানুষের নাক থেকে অ্যান্টিবায়োটিকের সন্ধান পেতে চলেছে বিজ্ঞানীরা।

শুনলে হয়তো অনেকেই গা গুলিয়ে উঠবে, নাকের ভেতরে থাকা মাইক্রোবস যে যৌগ তৈরি করে তা বেশ কিছু ভয়ঙ্কর প্যাথোজেন হত্যা করতে পারে। এসব প্যাথোজেনের মধ্যে রয়েছে সুপারবাগ এমআরএসএ। যে সব ব্যাক্টেরিয়া থেকে অ্যন্টিবায়োটিক তৈরি হয় তার বেশির ভাগই থাকে মাটির ভেতর। তবে মানুষের নাকে থাকা এই ব্যাক্টেরিয়া অ্যন্টিবায়োটিক তৈরির ক্ষেত্রে প্রথম প্রাণীজ ব্যাক্টেরিয়া। যত বেশী সংখ্যক রোগের জীবাণু অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধি হয়ে উঠছে বিজ্ঞানীরা তত বেশী করে নতুন নতুন উপশমের পথ খুঁজছেন। এই আবিষ্কারের সাথে জড়িত জার্মান বিজ্ঞানীরা বলছেন, নতুন জাতের অ্যান্টিবায়োটিকের প্রথম উদাহরণ হবে নাক থেকে পাওয়া এই অ্যান্টিবায়োটিক। বিভিন্ন কঠিন রোগ প্রতিরোধ করতে বিশেষ ভূমিকা নেবে এই ব্যাক্টেরিয়া।