Date : 2019-06-25

অ্যাডিনো ভাইরাসের কবলে শহর, প্রতিষেধকের অভাবে মৃত্যু

কলকাতা: শহরে নতুন আতঙ্কের নাম অ্যাডিনো ভাইরাস। ইতিমধ্যে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১০ জন শিশুর মৃত্যু হয়েছে। ক্রমশ বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। পার্ক সার্কাসের একটি বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসকের মতে, অ্যাডিনো ভাইরাসে আক্রান্তদের থেকে দুরত্ব অবলম্বল করা উচিৎ। এই ভাইরাসের প্রথম উপসর্গ সর্দি,কাশি, জ্বর। তার পরে ধীরে ধীরে শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়। অ্যাডিনো ভাইরাস ছোঁয়াচে হওয়ায় তা প্রতিরোধ করা খুব কঠিন। বড়দের থেকেও ছোটদের শরীরে এই ভাইরাসের সংক্রমণ খুব সহজে হয়। ছোটদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম। সেই কারণে বয়স্কদের তুলনায় ছোটরা বেশি কষ্ট পায় এই রোগে। বিশেষজ্ঞদের মতে, কলকাতায় এই ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিবছরই হয়।

তবে এই রোগ নির্ণয়ের পদ্ধতি রয়েছে। তাই সংক্রমণের সঙ্গে সঙ্গে রোগ নির্ণয় করা সম্ভব হয়। শ্বাস-প্রশ্বাসের মাধ্যমে এই ভাইরাস ফুসফুসে প্রবেশ করে নিউমোনিয়ার উপসর্গ সৃষ্টি করে। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও নষ্ট হয়। পার্কসার্কাসের ওই বেসরকারি হাসপাতালের দাবি, মাসখানেক আগে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ১০ জনের। গত বছরের আগে পর্যন্ত এই রোগ নির্ণয় পদ্ধতি ছিল না। এখনও পর্যন্ত এই রোগের প্রতিষেধক আবিস্কার করা সম্ভব হয়নি। রোগ নির্ণয় হলে রোগীকে অক্সিজেন এবং ভেন্টিলেশনে রাখতে হয়। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা নষ্ট হওয়ায়, রোগীর শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় মৃত্যুর আশঙ্কা দেখা দিচ্ছে। চিকিৎসকদের মতে বর্তমান আবহাওয়া এই ভাইরাসের অনুকুলে থাকায় সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত।