Date : 2021-01-19

দেনার দায়ে চাকরি খোয়াতে পারেন জেট এয়ারওয়েজের ২৩ হাজার কর্মী

ওয়েব ডেস্ক: কিছুদিন পর পরই বসে যাচ্ছে একের পর এক বিমান।

একদিকে বাজারে সাড়ে ৮ হাজার কোটি টাকার দেনা অন্যদিকে বিমানের ভাড়া মেটাতে হিমশিম খাচ্ছে নরেশ গয়ালের জেট এয়ারওয়েজ।

জেট এয়ারওয়েজের অফিশিয়াল সাইটে উল্লেখ করা আছে, মোট ১১৯ টি বিমান রয়েছে তাদের।

ইতিমধ্যেই ৫০ টিরও বেশী বিমান বসে যাওয়ায় হাতে রয়েছে মাত্র ৪১টি বিমান।

সেগুলির ভরসাতেই দেশ ও বিদেশ সেক্টরে বিমান পরিষেবা চালু রেখেছে জেট এয়ারওয়েজ।

একটি বিবৃতি প্রকাশ করে ডিজিসিএ জানিয়েছে,‘পরিস্থিতি অত্যন্ত সঙ্কটজনক।

আগামী দিনে পরিস্থিতির আরও অবনতি হতে পারে।

পরিস্থিতি বুঝে এ মাসের শেষে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করা হবে।’

ইতিমধ্যেই আবু ধাবি সহ বিদেশের একাধিক জায়গায় পরিষেবা বন্ধ করতে হয়েছে।

তবে কিছুদিন অন্তর এই পরিমান বিমান বন্ধ হওয়ায় আশঙ্কার মেঘ দেখা দিয়েছে।

বিদেশ ছাড়িয়ে বিমান বন্ধের কোপ পড়তে পারে এবার ডোমেস্টিক সেক্টরেও।

ইতিমধ্যেই নিয়মিত বেতন পাচ্ছেন না কর্মীরা।

এই অবস্থায় সংস্থা বন্ধ হয়ে গেলে কাজ হারাবেন প্রায় ২৩ হাজার কর্মী।