Date : 2019-06-26

বড় পর্দায় ‘৮৩’ বিশ্বজয়ের গল্প

ওয়েব ডেস্ক: ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্ন ছিল না ছোট থেকেই। ক্রিকেটের জন্য কিছু করার ইচ্ছে ছিল বরাবর। বাবার বিশ্ব জয়ের স্বাক্ষী তিনি। সেই গল্পকে রূপোলী পর্দায় তুলে ধরতে পর্দায় কপিল কন্যা অমিয়া বিশেষ ভাবে উদ্যোগ নিলেন। ভারতের ক্রীকেটের সেই ঐতিহাসিক ক্ষণকে ফের দর্শকদের সামনে ফুটিয়ে তুলতে বলিউডে নির্মান হচ্ছে চলচ্চিত্র। রাজনৈতিক নেতা, খ্যাতনামা খেলোয়াড়ের জীবনী নিয়ে বয়োপিক তৈরির ধুম পড়েছে বলিউডে। শচীন থেকে ধোনি, মনমোহন সিং থেকে নরেন্দ্র মোদী বায়োপিক নির্মানের প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে নেই কোন পরিচালক। ‘৮৩’ ছবিতে কপিল দেবের অধিনায়কত্ব ও ভারতের ক্রিকেটে বিশ্বজয়ের খেতাবই দেখানো হবে না, বরং ওই সময় ভারতীয় টিমের সব ক্রিকেটারদের জীবন যুদ্ধ থেকে মাঠে স্বপ্ন জয়ের যুদ্ধের কাহিনী ছুঁয়ে যাবে। ছবির পরিচালনার কাজ করছেন কবির খান। কপিল দেবের মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করবেন রণবীর সিং। রণবীরের অনুশীলনে তাকে সাহায্য করছেন স্বয়ং কপিল দেব। ৮৩ সালে বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার মাত্র কিছুদিন আগে দলের অধিনায়কের দ্বায়িত্ব পান তরুণ কপিল দেব। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ইংল্যান্ডের মাটিতে জয় পাওয়ার মতো শক্তিশালী টিম ছিল না ভারতের, তবুও ‘টিম ইন্ডিয়া কারকে দিখায়া’। ভারতীয় ক্রিকেট দলের স্বর্ণযুগকে তুলে ধরা নেহাত মুখের কথা নয়। বায়োপিকের মতো কোন ব্যক্তিকেন্দ্রিক ছবি নয় বরং বিশ্বজয়ী টিমে সব খেলোয়ারদের উত্থান পতনের কাহিনী নিয়ে তৈরি হতে চলেছে ‘৮৩’। তাই খুব কম সময়ের মধ্যে এই কাজ তুলে ধরা সম্ভব নয়। এই বিষয়ে কপিল কন্যা অমিয়া অবশ্য ঘোর প্রত্যয়ী। ছবির সহ পরিচালক হিসাবে দিনরাত কঠিন পরিশ্রম করে চলেছেন তিনি। ১৫ মে ছবির ইউনিট রওনা দেবে লন্ডনে। স্কটল্যন্ডে ছবির শ্যুটিং হওয়ার কথা।