Date : 2021-07-29

‘অ্যায়সি চায়, যো দুশমন কো ভি দোস্ত বনায়ে!’

ওয়েব ডেস্ক: দেশে ফিরেছেন অভিনন্দন বর্তমান। তাঁর দেশে ফেরার বেশ কয়েকদিন অতিবাহিত হলেও ভারতবাসীর কানে এখনও যেন বাজছে তাঁর কথা,”আই অ্যাম নট সাপোজ টু টেল ইউ স্যার”। শত্রুর সামনে দাঁড়িয়েও কতটা অবিচল থাকা যায়, বিশ্বকে শিখিয়েছেন তিনি। তৈরী করেছেন সাহসিকতার নতুন সংজ্ঞা। মিগ-২১ ভেঙে পড়ার পর পাক সেনার হাতে বন্দী হন ভারতীয় উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান। তারপর রুদ্ধশ্বাস ৬০ ঘন্টা। অবশেষে আন্তর্জাতিক কূটনৈতিক চাপের মুখে উইং কম্যান্ডার অভিনন্দনকে নিঃশর্তে মুক্তি দেয় ইমরান খান সরকার। অভিনন্দনের প্রতি শ্রদ্ধায় অবনত হয় গোটা দেশ।

তাঁর মতো গোঁফের ছাঁট থেকে অভিনন্দন শাড়ি, এমনকি সদ্যোজাত সন্তানের নাম পর্যন্ত রাখা হয় “অভিনন্দন”। তবে শুধু ভারত নয়, ভারতের বাইরেও মানুষের মনে দাগ কেটেছেন তিনি। তাও আবার পাকিস্তানের মাটিতে। ছোট্ট একটি চায়ের দোকান। সেই দোকানে রয়েছে অভিনন্দনের ছবি। ছবিতে চায়ের কাপে চুমুক দিতে দেখা যাচ্ছে অভিনন্দনকে। পাশে লেখা, ‘অ্যায়সি চায়, যো দুশমন কো ভি দোস্ত বনায়ে!’ মুহূর্তে নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হয় ছবিটি। পাকিস্তানের ঠিক কোন অঞ্চলে দোকানটি রয়েছে তা অবশ্য জানা যায়নি। তবে ঐ চা বিক্রেতার ব্যবসায়িক বুদ্ধিকে যেমন একদিকে তারিফ কুড়িয়েছে তেমনই এই কঠিন সময়ে তার এই কাজ দু দেশের মধ্যে শান্তির বার্তা বহন করছে।

প্রসঙ্গত, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামার জঙ্গি হামলায় শহিদ হন চল্লিশ জনেরও বেশি সিআরপিএফ জওয়ান। ১২ দিন পর পাল্টা জবাব দেয় ভারতীয় বায়ুসেনা। পাকিস্তানে এয়ারস্ট্রাইকে ধ্বংস করে দেওয়া হয় একাধিক জঙ্গিঘাঁটি। এরপর ২৭ ফেব্রুয়ারি ভারতীয় আকাশসীমা লঙ্ঘন করে পাক বায়ুসেনার যুদ্ধবিমান এফ-১৬। তাকে ধাওয়া করে ভারতীয় বায়ুসেনার যুদ্ধবিমান মিগ-২১৷ যার পাইলট ছিলেন অভিনন্দন বর্তমান৷ এরপর মিগ-২১ বাইসন বিমানটি নিয়ে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে ভেঙে পড়লে পাক সেনার হাতে বন্দি হন তিনি৷ অবশেষে তাঁর দেশে ফেরা। সবমিলিয়ে তাঁর কীর্তি যে শুধুমাত্র দেশের মানুষের মন ছুঁয়েছে এমন নয়, তারই সাক্ষ্য বহন করে ঐ পাকিস্তানী চা বিক্রেতার দোকানের ব্যানার।