Date : 2019-06-25

২ হিন্দু কিশোরীকে অপহরণ,ধর্মান্তরণ ও বিয়ের ঘটনায় গ্রেফতার ১ মৌলবী

ওয়েব ডেস্ক: হোলির দিন পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশে ২ সংখ্যালঘু হিন্দু কিশোরীকে অপহরণ করে ইসলামে ধর্মান্তরিত করিয়ে বিয়ে করার ঘটনায় এবার নড়েচড়ে বসল ইমরান সরকার।

এই ঘটনায় রবিবার এক মৌলবীকে গ্রেফতার করে সেদেশের প্রশাসন।

রবিবার এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই সেদেশে নিযুক্ত ভারতের রাষ্ট্রদূতের কাছ থেকে রিপোর্ট তলব করেন বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ।

এই ঘটনা নিয়ে পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী ফুয়াদ চৌধুরীর সঙ্গে সুষমার বাকযুদ্ধও শুরু হয়ে যায়।

এদিকে ঘটনার প্রতিবাদে মুখর হন সেদেশে বসবাসকারী হিন্দুরা।

অভিযুক্তদের কঠোর শাস্তির দাবি তোলেন তাঁরা।

এ ব্যাপারে তারা প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে তৎপর হওয়ার জন্য অনুরোধ করেন।

পাক সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, গত ২০ মার্চ সেদেশের সিন্ধু প্রদেশের দহরকি নগরের পাশে হাফিজ সলমন গ্রামের বাসিন্দা ১৩ বছরের রবিনা ও ১৫ বছরের রীনাকে অপহরণ করে কয়েকজন যুবক।

তারপর জোর করে ইসলামে ধর্মান্তরিত করিয়ে বিয়ে করে তারা।

যে মৌলবি তাদের বিয়ে দেন, রবিবার তাকে সিন্ধু প্রদেশের খানপুর থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

বিদেশ মন্ত্রক সূত্রে খবর,এই ঘটনার পর ভারত পাকিস্তানকে ‘নোট ভারবাল’ জারি করে সেদেশে সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা ও কল্যাণের স্বার্থে।