Date : 2021-09-26

বকেয়া মিটিয়ে ভাইয়ের হাজতবাস রুখলেন মুকেশ

ওয়েব ডেস্ক:ইরিকসন মামলায় জেলযাপনের হাত থেকে মুক্তি পেলেন রিলায়্যান্স কমিউনিকেশনের কর্ণধার অনিল অম্বানি।

সৌজন্যে দাদা মুকেশ অম্বানি ও বৌদি নীতা অম্বানি।

সুইডিশ সংস্থা এরিকসনকে ৪৫৩ কোটি টাকা মঙ্গলবারের মধ্যে শোধ করতে না পারলে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে হাজতবাস নির্ধারিত ছিল অনিল অম্বানির কপালে।

কিন্তু শেষ মুহূর্তে পাশে দাঁড়ালেন দাদা মুকেশ।

ভাইয়ের বকেয়া টাকা মিটিয়ে দিলেন দাদা মুকেশ ও বৌদি নীতা অম্বানি।

এদিন ট্যুইটারে তাঁদের ধন্যবাদ জানিয়ে অনিল অম্বানি লেখেন দাদা-বৌদির সাহায্য পেয়ে পরিবারের সম্মান-ঐতিহ্য অক্ষুন্ন রইল।

তাদের এই আন্তরিকতায় অতীত ভুলে একসঙ্গে চলার সুযোগ পেলাম।

বেশ কিছুদিন ধরেই মনে করা হচ্ছিল, দুই ভাইয়ের মধ্যে সম্পর্কের বরফ গলছিল।

সম্প্রতি মুকেশ অম্বানির কন্যা ইশা ও পুত্র আকাশ-এর বিয়েতে সপরিবারে উপস্থিত ছিলেন অনিল অম্বানি।

প্রসঙ্গত, ২০০২ সালে ধীরুভাই অম্বানির মৃত্যুর পর ভাগ হয়ে যায় রিলায়ান্স গোষ্ঠী।

এরিকসনের বকেয়া টাকা না মেটানোর অভিযোগে গত ফেব্রুয়ারী মাসে অনিল অম্বানিকে দোষী সাব্যস্ত করে শীর্ষ আদালত।

নির্দেশ দেওয়া হয় আগামী ১৯ মে’র মধ্যে বকেয়া টাকা না মেটালে হাজতবাস হতে পারে তাঁর।

জানা গিয়েছে, দু’দিন আগে মুকেশের সঙ্গে বৈঠকে বসেন অনিল।

তবে, ঋণ নাকি কোনও চুক্তির মাধ্যমে অনিল ওই মোটা অঙ্কের টাকা নিয়েছেন, তা অবশ্য জানা যায়নি।

প্রসঙ্গত ২০১৪ সালে নেটওয়ার্কের বরাত পেতে রিলায়্যান্স কমিউনিকেশনের সঙ্গে চুক্তি হয় এরিকসনের।