Date : 2021-02-25

দুশো বছরের মশলা মেলায় নববর্ষের স্বাদ

উত্তর ২৪পরগণা: “ বৈশাখ দেয় নতুনের ডাক/ জীর্ণ যা কিছু যাক মুছে যাক”। হালখাতা, গণেশ পূজো, মিষ্টিমুখে শুরু হয় বাঙালির নববর্ষ। নতুন মানেই পুরনোর সমাপ্তি। হিসাবের খাতায় সিঁন্দুর ছুঁইয়ে নতুন করে হিসেব লেখেন ব্যবসায়ীরা। কথিত আছে বৃটিশ শাসিত গ্রামে কৃষকদের খাজনা মিটিয়ে দিত হত চৈত্রমাসের মধ্যেই। সংক্রান্তির আগে হিসেব চুকিয়ে ফেলতেন জমিদাররা। উত্তর ২৪ পরগণার গোবরডাঙায় জমিদারের খাজনা মেটানোর জন্য এইদিনেই গ্রামবাসীরা মশলা মেলা করেছিলেন।

পরম্পরা মেনে উত্তর ২৪ পরগণার গোবড়ডাঙা কালিবাড়ির পার্শ্বস্থ মাঠে দুশো বছর ধরে চলে আসছে সেই মেলা। কথিত আছে জমিদারের খাজনা মেটানোর দায় দূর-দূরান্ত থেকে কৃষকরা এখানে আসত ফসল বিক্রি করতে।

বছরের প্রথমে মশলা মেলায় ফসল বেচে দিন শুরু করত তারা। নেই জমিদার নেই ইংরেজ। দেনা মেটানের তাড়াও নেই কৃষকদের তবুও সেই রীতি মেনে পয়লা বৈশাখ থেকে প্রায় ১০ দিন ধরে চলে এই মেলা। সংসারে রান্না-বান্নার রকমারি খুচরো মশলার ঠিকানা হয়ে ওঠে এই মেলা প্রাঙ্গন। মেলা ঘিরে এলাকায় উৎসবের চেহারা নেয়।

বাজারের তুলনায় বেশ কিছুটা কম দামে জিনিস পাওয়া যায় তাই অনেক মানুষ যোগ দেয় এই মেলায়। ধনে, সরসে, কালোজিরে থেকে শুরু করে আদা, পেঁয়াজ, রসুনের পসরা সাজিয়ে নিয়ে বসেন দোকানিরা। জামা-কাপড়, খেলনা পুতুল, কাঁচের চুড়ি, জিলিপির গন্ধের বদলে এই মেলা আসলেই পাবেন ঝাঁঝালো মশলার গন্ধ। আর আপনার প্রিয় ব্যঞ্জনের কথা ভেবে জিভে জল আসবেই।