Date : 2021-05-10

শ্রীলঙ্কায় ধারাবাহিক বিস্ফোরণে লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা

ওয়েব ডেস্ক: শ্রীলঙ্কায় ধারাবাহিক বিস্ফোরণে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৯০। আহত ৫০০। ইস্টার সানডে উপলক্ষ্যে রবিবার নেগোম্বোর সেন্ট সেবাস্টিয়ান চার্চ এবং বাটিকালোয়ার চার্চে চত্বরে ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। কিন্তু কোনো কিছু বোঝার আগেই সকাল পৌণে ন’টা নাগাদ বিস্ফোরণের শব্দে কেঁপে ওঠে গোটা এলাকা। রবিবারের ছুটির আমেজ যেন মুহূর্তে বদলে যায় আর্ত চিৎকার ও দেহাংশের স্তূপে। শ্রীলঙ্কার দৈনিক ডেইলি মিররের খবর অনুযায়ী, বাট্টিকালোয়ার একটি হোটেল ও চার্চে বিস্ফোরণ ঘটেছে।

সৌজন্যে – গুগল

পাশাপাশি বিস্ফোরণ ঘটেছে সাংরি লা, সিনামোল গ্র্যান্ড ও কিংসবারি হোটেলে। এছাড়াও বিস্ফোরণ হয়েছে কোচ্চাইকাদের সেন্ট অ্যান্টনি চার্চে ও কাটুয়াপিট্টির সেন্ট সেবাস্টিয়ান চার্চে। কিছু মুহূর্তের ব্যবধানে কার্যত মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয় গোটা এলাকা। সেখানকার বিভিন্ন হাসপাতালে আহতদের চিকিৎসা চলছে। এখনও পর্যন্ত ছয় ভারতীয়র মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে, এমনটাই জানিয়েছেন বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। এখনও পর্যন্ত ঘটনার দায় স্বীকার করেনি কোনও জঙ্গি সংগঠন।

সৌজন্যে – গুগল

গোয়েন্দাদের সন্দেহের তীর এনটিজে বা ন্যাশনাল ত্বহিদ জামাতের দিকে। এদিকে এনটিজে জড়িত নয় বলে দাবি করেছেন, শ্রীলঙ্কার ইস্টার্ন প্রভিন্সের গভর্নর মেহমুদ লেব্বে আলিম। তবে দিন দশেক আগেই শ্রীলঙ্কার পুলিস প্রধান সম্ভাব্য জঙ্গি হানার সতর্কতা দিয়েছিলেন। নাম নিয়েছিলেন এনটিজে-র। হামলার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে এখনও পর্যন্ত ২৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সৌজন্যে – গুগল

এদিকে, বিস্ফোরণের পর থেকে খোঁজ মিলছে না সাতজন জনতা দল সেকুলার নেতার। তাঁরা কলম্বোর শাংরি-লা হোটেলে উঠেছিলেন বলে খবর। বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ জানিয়েছেন , প্রতিবেশী দেশ শ্রীলঙ্কাকে সবরকমভাবে সাহায্য করবে ভারত। প্রয়োজনে সেদেশে বিশেষ মেডিক্যাল টিম পাঠাবে দিল্লি। নিরাপত্তাজনিত কারণে বিমান চলাচলের পাশাপাশি শ্রীলঙ্কার স্কুলগুলিও বন্ধ রাখা হয়েছে। এখনও অশান্ত শ্রীলঙ্কা। সোমবার বায়ুসেনার তত্পরতায় ফের এক বিস্ফোরণের হাত থেকে বাঁচল কলম্বো বিমানবন্দর।