Date : 2021-12-02

কেন্দ্রীয় বাহিনীর দাবিতে আসানসোলে বিক্ষোভ

আসানসোল: তৃতীয় দফার রেশ কাটল না চতুর্থ দফায়। ৯৮ শতাংশ বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকলেও আসানসোল কেন্দ্রের অন্তর্গত জামুয়ায় কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েনের দাবিতে তীব্র বিক্ষোভ দেখালো গ্রামবাসীরা। তাদের দাবি পঞ্চায়েত নির্বাচনের ভোট দিতে বাধা দেওয়া হয়েছিল।

রাজ্য পুলিশে উপর আর ভরসা নেই। সূত্রের খবর, এদিন সকাল থেকেই ঐ অঞ্চলে সিপিএম-তৃণমূলের মধ্যে বচসা শুরু হয়। দু দলের সমর্থকরা পরস্পরের উপর বাঁশ-লাঠি নিয়ে চড়াও হয়। এরপরেই লাঠিচার্জ করত শুরু করে পুলিশ, জখম হন কয়েকজন গ্রামবাসী। পুলিশের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন গ্রামবাসীরা।

গ্রামবাসীদের বক্তব্য, এক সপ্তাহ ধরে এলাকায় রুট মার্চ করছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। নির্বাচন কমিশনের তরফেও সুষ্ঠ ও অবাধ নির্বাচনের আশ্বাস দেওয়া হয়। নির্বাচনের দিন সকাল থেকে জামুয়ার ভাদুবালা বিদ্যাপীঠের সাতটি বুথ মাত্র পাঁচজন কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকতে দেখেন গ্রামবাসীরা।

বাকি বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনীর দাবিতে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন তারা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে আসানসোল টাউন শিপ থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। সেখানে পুলিশকে ঘিরেই বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে গ্রামবাসীরা।

শাসক দলের অভিযোগ এলাকায় ভোটারদের প্রভাবিত করছিল বিরোধীরা। পাল্টা শাসকদলের বিরুদ্ধেও ভোটারদের প্রভাবিত করার অভিযোগ করেছে বিরোধী শিবির। যদিও ঘটনার পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট তলব করেছে নির্বাচন কমিশন।