Date : 2019-06-27

কটন বাড ব্যবহার করেন! আপনার বধিরতা তাহলে নিশ্চিত…

ওয়েব ডেস্ক: সেফটিপিন অথবা কাগজ পেচিয়ে কান খোঁচানোর চেয়ে কটন বাড দিয়ে কান খোঁচানো ভালো এবং নিরাপদ, অনেকেই ভাবেন এটা খুব নিরাপদ। বাস্তবে এই কটন বাড আপনার কানে কতবড় ক্ষতি করতে পারে সেই সম্পর্কে ধারণা নেই।

না, তুলো দিয়ে কান খোঁচানো যে আদৌ নিরাপদ নয়। বছরখানেক আগে একটি সমীক্ষায় এমনটাই ধরা পরেছিল, বিশেষজ্ঞদের মতে, কটন বাড ব্যবহার করে কানের জটিল রোগ হতে দেখা গেছে প্রায় ৯০ শতাংশ মানুষের। মার্কিন চিকিত্সক ডঃ ক্রিস্টোফার চ্যাং-এর মতে, কটন বাড ব্যবহার করলে কানের নরম অস্থি নষ্ট হতে পারে, কটন বাডের সূক্ষ তন্তু কানের মধ্যে আটকে থেকে অনেক সময় ফাঙ্গাল ইনফেকশন হয়।

এর ফলে কান থেকে রক্তপাত হতে পারে এর ফলে শ্রবন শক্তি দূর্বল হয়ে যাওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। কানের ভিতর তৈরি হওয়া তৈলাক্ত পদার্থ ধুলোবালির হাত থেকে কানের নরম অংশকে রক্ষা করে। ঘুমের সময় নিজে থেকেই এই পদার্থ নির্গত হয়ে যায়। একান্ত যদি তা না হয় তবে কানে অস্বস্তি তৈরি হয়। তখন অবশ্যই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শে কানের চিকিৎসা করার প্রয়োজন।

প্রয়োজনীয় ওষুধ ব্যবহার করলে এই সমস্য মিটে য়েতে পারে, তবে কানে কাঠি, কাগজ, সেফটিপিনের ব্যবহার করে সাময়িক স্বস্তি মিললেও কানের স্বাস্থ্যের পক্ষে তা নৈব নৈব চঃ।