Date : 2019-08-23

স্কুল ফি-এর জায়গায় ছাত্ররা দিচ্ছে ফেলে দেওয়া প্লাস্টিক

ওয়েব ডেস্ক : রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এমন একজন মানুষ ছিলেন যিনি কোনোদিন চার দেওয়ালের মাঝে পড়াশুনাকে মেনে নেননি। তাই নিজেও যেমন সেই নিয়মের বেড়জালে নিজেকে বেঁধে ফেললেন নি। ঠিক তেমনই শান্তিনিকেতনের বুকে তৈরি করেছিলেন বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়। যেখানে ছাত্রছাত্রীরা খোলা আকাশের নিচে পড়াশুনা করতে পারবে। আসামের পামোহী অঞ্চলে সবুজের মাঝে, মাথা উপরে কংক্রিট নয়, বাঁশের ছাউনি দেওয়া একটি স্কুল গড়ে উঠেছে। নাম, অক্সর। এই স্কুলে পড়তে আসা প্রতিটি বাচ্চাই খুব গরীব। তবে এখানেই শেষ নয়, আসল চমটা অন্য জায়গায়। এই স্কুলে পড়তে আসা ছাত্র-ছাত্রীদের দিতে হয়না কোনো মাস মাইনে।

তার বদলে প্রতি মাসে জমা করতে হয় ফেলে দেওয়া প্লাস্টিক। হ্যাঁ, ঠিকই শুনছেন। এমন একটি অসাধ্য সাধন করেছে মাজিন ও পারমিতা। স্কুলটিতে বাচ্চাদের নাচ, গান, সেলাই, বাগান সাজানো, ও প্লাস্টিকের অপব্যবহার যে পরিবেশের কতোটা ক্ষতি করে সেই শিক্ষাও দেওয়া হয় এই স্কুলে। অনেক বাধা অতিক্রম করে মাজিন ও পরমিতা তাদের স্বপ্ন সফল করেছে। এখনও অনেক পথ যাওয়া তাদের বাকি।