Date : 2021-03-03

নীচু ধর্মে বিবাহের অপরাধে পুড়িয়ে খুনের চেষ্টা যুগলকে

ওয়েব ডেস্ক: আজ ২১ শতাব্দীতে দাঁড়িয়েও বেশ বোঝা যায় যে এগিয়েছে শুধু সময়ই। মানুষের মন পড়ে আছে সেই একই পাঁকে। আর এই মানসিকতারই প্রমাণ মিলল আরও একবার। দুমাসের গর্ভবতী মহিলা ও তাঁর স্বামীকে পুড়িয়ে মারা হল।

ঘটনাটি ঘটেছে মহারাষ্ট্রের আহমেদ নগরের নিঘোজ নামক একটি গ্রামে। পুড়িয়ে মারার আসল কারণ শুনলে অবাক হওয়াটাই স্বাভাবিক। রুক্মিনী গত বছর পালিয়ে বিয়ে করেন নিচু জাতির মঙ্গেশ রনসিংকে। তাঁদের প্রেম প্রথম থেকেই মেনে নেয়নি রুক্মিনীর পরিবার।

তাই তারা আলাদা থাকতে শুরু করেন। কিন্তু ৩১শে এপ্রিল স্বামী স্ত্রীর মধ্যে সামান্য বাগবিতন্ডায় বাড়ি ছেড়ে বাপের বাড়ি চলে যান রুক্মিনী। পরে মঙ্গেশ তাঁর স্ত্রীকে ফিরিয়ে আনতে গেলে রুক্মিনীর বাড়ির লোক তাতে রাজি হয়নি। শুরু হয় ঝগড়া-মনোমালিন্য। সেই দিনই অর্থাৎ ১লা মে, যুগলকে ঘরে বন্ধ করে আগুন জ্বালিয়ে দেওযা হয়।

তাতে ১৯ বছর বয়সী রুক্মিনীর ৭০ ভাগ অংশ পুড়ে যাওয়ায় সে মারা যায়। তাঁর স্বামীর শরীরের ৫০ ভাগ পুড়ে যায়,সঙ্কটজনক অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনি। পুলিশ রুক্মিনীর দুই কাকাকে অ্যারেস্ট করেছে।