Date : 2019-08-23

রুদ্ধশ্বাস আইপিএল, এক রানে ট্রফি ছিনিয়ে নিল মুম্বই

ওয়েব ডেস্ক: আইপিএল-এর গ্রুপ সিলেকশন পর্বেই চেন্নাই বাধা পেয়েছিল মুম্বইয়ের কাছে। ফাইনালে সেই খেলারই যেন রিপ্লে হল হায়দ্রাবাদের মাঠে। শেষ চালে মাহির দলকে কিস্তিমাত করল রোহিতরা। সিএসকে কে মাত্র ১ রানে হারিয়ে দ্বাদশ আইপিএল এবার হল চ্যাম্পিয়ন মুম্বই।

টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নিলেন মুম্বইয়ের অধিনায়ক রোহিত শর্মা। শুরুটা জমিয়ে দিয়েছিলেন রোহিত-কক জুটি। হাল ছাড়েনি চেন্নাইও। ২৯ রানে কক-কে এবং ১৫ রানে রোহিতকে ড্রেসিং রুমে পাঠান শর্দুল ঠাকুর আর দীপক চাহর। একের পর এক উইকেট হারাতে থাকে মুম্বই। সূর্যকুমার যাদব, ইশান কিষান, ক্রুনাল পাণ্ডিয়া লাইন করে আউট হন। বড় রান করতে পারেননি হার্ড হিটার হার্দিক পাণ্ডিয়া।

ফাইনালে ১০ বলে মাত্র ১৬ রান করেন হার্দিক। পোলার্ড ২৫ বলে ৪১ রানে অপরাজিত থেকে যান। চেন্নাই ঝড়ে বিধ্বস্ত হয়ে শেষমেশ ৮ উইকেট কোন মতে হারিয়ে ১৪৯ রান তোলে মুম্বই। চেন্নাইয়ের হয়ে ৩টি উইকেট নেন দীপক চাহর। ২টি করে উইকেট নেন শর্দুল ঠাকুর এবং ইমরান তাহির।

১৫০ রানের টার্গেট নিয়ে ব্যাট করতে নেমে ঝোড়ো শুরু করেন ফাফ দু প্লেসি। ১৩ বলে ২৬ রানে ফিরে যান দু প্লেসি। এরপর ওয়াটসন-রায়না জুটি দলকে টানতে থাকলেও রায়না ফিরেন ১৪ বলে ৮ রানে। রায়াডু ফিরলেন দ্রুত, মাত্র ১ রান করেন তিনি। এরপর মহেন্দ্র সিং ধেনিকে দুরন্ত থ্রোয়ে রান আউট করেন ইশান কিষান। মাহি করেন মাত্র ২ রান। বার দুয়েক জীবনদান পেয়ে একা লড়াই চালিয়ে যান ওয়াটসন।

ক্রুনাল পাণ্ডিয়ার এক ওভারে ৩টি ছক্কা মেরে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেন। ডোয়াইন ব্রাভো ১৫ বলে ১৫ রান করে আউট হন। এরপর টান টান টি-টোয়েন্টির উন্মাদনায় চোখের পলক পরেনি গোটা দেশের। শেষ ওভারে ৮০ রানে আউট হন ওয়াটসন। ২ বলে চেন্নাইয়ের দরকার তখনও দরকার ছিল ৪ রান। মালিঙ্গার ম্যাজিকও শেষমেশ ধরে রাখতে পারেনি চেন্নাইকে। শেষ বলে উইকেট তুলে নিয়ে এক রানে ট্রফি ছিনিয়ে নেয় মুম্বই।